চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

হল বাড়ছে ‘বেপরোয়া’র, দর্শক কি বাড়ছে?

ঈদের দিন থেকে ৫৩ টির মতো সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছিলো ‘বেপরোয়া’। মুক্তির পর ঈদের ছবি হিসেবে প্রশংসাও কুড়িয়েছে। ছবিটি নিয়ে আগ্রহ বাড়ছে দেশের হল মালিকদেরও। তাই আগামী সপ্তাহ থেকে বাড়ছে হল সংখ্যা। 

চ্যানেল আই অনলাইনকে এমনটাই জানালেন চিত্রনায়ক রোশান।

বিজ্ঞাপন

চিত্রনায়ক রোশান বলেন, ‘বেপরোয়া’ কেউ দেখে খারাপ বলছে না। গত কয়েকদিনের অভিজ্ঞতা থেকে বুঝতে পারছি, আমার প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে। যা আশা করেছিলাম, তার চেয়ে বেশী পাচ্ছি।  ফোন করে কয়েকজন প্রযোজক, পরিচালক আমাকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। আমাকে নিয়ে কাজ করবেন বলেও আগ্রহ দেখাচ্ছেন।

‘ছবি দেখার জন্য দর্শক টান টান উত্তেজনা অনুভব করছেন। বিভিন্ন গণমাধ্যমে ছবির রিভিউ হচ্ছে। সবখানেই ইতিবাচক দেখতে পাচ্ছি। ফেসবুকের বিভিন্ন চলচ্চিত্র বান্ধব গ্রুপেও লেখালিখি হচ্ছে। কেউ ছবি দেখে খারাপ লেগেছে এটা বলেনি।’

রোশান বলেন, ছবিটি মুক্তির আগে অনেকেই রিমেক বলে নেতিবাচক কথা বলেছিলেন। কিন্তু মুক্তির পর রিমেক নিয়ে যারা মাথা ঘামাচ্ছিল তারা চুপ হয়ে গেছে। গল্পের উপস্থাপনাটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা যেভাবে গল্পটাকে উপস্থাপন করেছি, দর্শক উপস্থাপনায় পুরোপুরি নতুনত্ব পেয়েছে। বলিউডের এ বছরের অন্যতম হিট ছবি ‘কবির সিং’-ও রিমেক।

নিজেদের মতো করে বানাতে পারলে দর্শক রিমেক ছবিও গ্রহণ করেন। যেমনটা বেপরোয়ার ক্ষেত্রে হয়েছে বলে মনে করছেন রোশান। তিনি বলেন, প্রথমে ৫৩ হল দিয়ে শুরু হলেও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ থেকে জেনেছি আগামী শুক্রবার আরও বেশী হল পেতে যাচ্ছে ‘বেপরোয়া’।

ঢাকার অভিসার চলছে বেপরোয়া। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সেখানে ছবিটি মোটামুটি ভালো চলছে।

কর্তৃপক্ষ বলছে, বিগ অ্যারেঞ্জমেন্টের ছবি, পুরোপুরি অ্যাকশন ঘরানার ছবি। এমন অ্যাকশনের ছবি আমাদের দেশে খুব কম নির্মিত হয়। ইমোশন আছে। ঈদের ছুটি কাটিয়ে মানুষ ঢাকা ফিরতে শুরু করেছে। ধীরে ধীরে সেখানে দর্শক ছবি দেখতে আসছে। দেশের অন্যান্য ছবির তুলনায় কমপ্যারাটিভলি সেল ভালো।

‘বেপরোয়া’ পরিচালনা করেছেন কলকাতার পরিচালক রাজা চন্দ। রোশান-ববি ছাড়াও অভিনয় করেছেন তারিক আনাম খান, শহীদুল আলম সাচ্চু, নিমা রহমান, সাদেক বাচ্চু, রেবেকা প্রমুখ।

Bellow Post-Green View