চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

হলের তালিকা দেখে আমার মনটা ভরে গেছে: চঞ্চল চৌধুরী

বিজ্ঞাপন

গিয়াস উদ্দিন সেলিম পরিচালিত ও ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত ‘পাপ পুণ্য’র মাধ্যমে প্রথম কোনো বাংলাদেশের ছবি উত্তর আমেরিকার ১১২ টি সিনেমা হলে মুক্তি পেতে যাচ্ছে! সম্প্রতি হলগুলোর তালিকা প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক পরিবেশক সংস্থা স্বপ্ন স্কেয়ার ক্রো। যা দেখে মুগ্ধ অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী।

‘পাপ পুণ্য’র মাধ্যমে গিয়াস উদ্দিন সেলিমের সিনেমায় ফিরলেন ‘মনপুরা’ খ্যাত চঞ্চল। স্বাভাবিক কারণেই সিনেমাটি নিয়ে দর্শকের তুমুল আগ্রহ। ২০ মে মুক্তির প্রতীক্ষায় থাকা এই সিনেমাটি উত্তর আমেরিকায় রেকর্ড সংখ্যক হল পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত চঞ্চল চৌধুরী।

pap-punno

এরআগে ২০১৬ ও ২০১৮ সালে চঞ্চল চৌধুরী অভিনীত ‘আয়নাবাজি’ ও ‘দেবী’ যথাক্রমে কানাডার ৪টি ও ৬টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছিলো। অল্প সংখ্যক হলে মুক্তি পেলেও ছবি দুটি সে সময় বক্স অফিসে দারুণ ব্যবসা করতে সমর্থ হয়। তারই ধারাবাহিকতায় এবার উত্তর আমেরিকার বিশাল সংখ্যক প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেতে যাচ্ছে চঞ্চল অভিনীত ‘পাপ পুণ্য’।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এটি বাংলাদেশী চলচ্চিত্র শুভমুক্তির বেলায় ইতিহাস! মুক্তির আগে উত্তর আমেরিকার ১১২ টি হলে তালিকা জানিয়েছে উত্তর আমেরিকায় ‘পাপ পুণ্য’ মুক্তি দেয়া আন্তর্জাতিক পরিবেশক সংস্থা স্বপ্ন স্কেয়ার ক্রো।

যা দেখে উচ্ছ্বসিত চঞ্চল চৌধুরী নিজের অনুভূতি জানিয়ে বলেন, ‘উত্তর আমেরিকার দর্শকদের জন্য আমার অনেক ভালোবাসা জমে আছে। আয়নাবাজি এবং দেবী সেখানে অনেক বড় সফলতা পেয়েছে, একথা সবার জানা। এবার পরিবেশক ‘স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো’ কানাডা ও আমেরিকার ১১২ টি থিয়েটারে আমার নতুন সিনেমা ‘পাপপুণ্য’ মুক্তি দিচ্ছে। লিস্ট দেখে আমার মনটা ভরে গেছে।

Bkash May Banner

তিনি বলেন,‘ভালো লাগছে কানাডা ও আমেরিকার ১২ লাখ বাংলাদেশি চাইলেই কাছের থিয়েটারে দেশের সিনেমা উপভোগ করতে পারবেন।’

স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো এর প্রেসিডেন্ট অলিউল্লাহ সজীব মনে করেন, বাংলাদেশের সিনেমার ইতিহাসে এটি যে একটি যুগান্তকারী ঘটনা। আন্তর্জাতিক বক্স অফিসে ভারতীয় সিনেমার যে দাপট, তার শুরুটা হয়েছিল কিন্তু অধিকসংখ্যক থিয়েটারে অধিক মানুষের কাছে তাদের সিনেমা নিয়ে যাওয়ার মধ্য দিয়ে। ‘পাপ পুণ্য’ মুক্তি পাচ্ছে এক যোগে কানাডার ৫টি প্রভিন্সের ৮টি শহর এবং আমেরিকার ২৫টি স্টেট এর ১০০ এর বেশি শহরে। এতে করে সিনেমাটি ২০মে থেকে আমেরিকা ও কানাডার মোটামুটি ১মিলিয়ন এর বেশি (বাংলাদেশের সিনেমার) দর্শকের দেখার সুযোগ হচ্ছে।

মনপুরা’র বিশাল সাফল্যের পর গিয়াস উদ্দিন সেলিম ও চঞ্চল চৌধুরী জুটির ‘পাপ পুণ্য’ নিয়ে দর্শকদের বিশাল আগ্রহ রয়েছে বলে মনে করে প্রযোজনা সংস্থা ইমপ্রেস টেলিফিল্ম। সেইসাথে এ সিনেমায় আছেন আফসানা মিমি, এই সময়ের ক্রেজ সিয়াম আহমেদ, নবাগত সুমিসহ একঝাঁক তারকা।

স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো বাংলাদেশ এর প্রধান নির্বাহী সৈকত সালাহউদ্দিন জানিয়েছেন, তাদের অফিসিয়াল পেজগুলোতে থাকছে উত্তর আমেরিকায় ‘পাপ পুণ্য’ সিনেমার ১১২ হলের তালিকা। ১৮ মে থেকে থিয়েটারগুলির ওয়েবসাইট পাওয়া যাবে শো-টাইম ও অগ্রিমটিকেট।

ইমপ্রেস টেলিফিল্ম জানিয়েছে, শিগগির দেশের প্রেক্ষাগৃহের তালিকাও প্রকাশ করা হবে।

বিজ্ঞাপন

Bellow Post-Green View
Bkash May offer