চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সড়ক উন্নয়নে বিশ্বব্যাংকের ৪ হাজার ২৫০ কোটি টাকার ঋণ

বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চলের সড়ক নেটওয়ার্ক ও ডিজিটাল সংযোগ উন্নয়নে ৪ হাজার ২৫০ কোটি টাকার (৫০০ মিলিয়ন ডলার) ঋণ অনুমোদন দিয়েছে বিশ্ব ব্যাংক। গতকাল মঙ্গলবার (২৩ জুন) যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে অবস্থিত বিশ্ব ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় এই ঋণ অনুমোদন দিয়েছে।

বুধবার বিশ্ব ব্যাংকের ঢাকা কার্যালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিশ্ব ব্যাংক বলছে, ‘ওয়েস্টার্ন ইকোনমিক করিডোর অ্যান্ড রিজিওনাল এনহেন্সমেন্ট (উইকেয়ার) ফেজ-১’ শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়নে এ অর্থ ব্যয় করা হবে।

বিজ্ঞাপন

এই প্রকল্পে দুইলেনের ১১০ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ভোমরা-সাতক্ষীরা-নাভারণ এবং যশোর-ঝিনাইদহ সড়ক নির্মাণ করা হবে। বিশেষ করে পশ্চিমাঞ্চলের ৪টি জেলাকে সংযুক্ত করতে যশোর-ঝিনাইদহে করিডোর গড়ে তোলা হবে। দেশের পশ্চিমাঞ্চলে ২৬০ কিলোমিটার অর্থনৈতিক করিডোর গড়ে তোলার যে পরিকল্পনা রয়েছে, তাতে এই ঋণ সহযোগিতা করবে। এতে ওই অঞ্চলের ২ কোটি মানুষ উপকৃত হবেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিশ্ব ব্যাংকের বাংলাদেশ ও ভুটানে নিযুক্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর মার্সি টেম্বন বলেন, বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চলে অনেক ধরনের কৃষি পণ্য ও প্রাকৃতিক সম্পদ রয়েছে। পাশাপাশি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের প্রবেশপথ হিসেবেও এ অঞ্চলের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রকল্পটি পশ্চিমাঞ্চলকে রাজধানীর সঙ্গে যুক্ত করে, কৃষি পণ্যকে বাজারে যুক্ত করার পাশাপাশি পার্শ্ববর্তী দেশের সঙ্গে সংযোগ তৈরির মাধ্যমে ব্যবসা-বাণিজ্য, যাতায়াত ও অন্যান্য সহযোগিতায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে জানান তিনি।

বিশ্বব্যাংক বলছে, দেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশে রূপান্তরে এই প্রকল্পের আওতায় ফাইবার অপটিক ক্যাবল স্থাপন করা হবে। যাতে নির্ভরযোগ্য ও সহজে ইন্টারনেট সেবা পাওয়া যায়। যা করোনার মতো মহামারিতেও ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনা ও অন্যান্য জরুরি সেবা প্রদান করতে সক্ষম হবে।

বিশ্ব ব্যাংকের ট্রান্সপোর্ট স্পেশালিস্ট ও প্রজেক্ট টাস্ক টিম লিডার রাজেশ রোহাতগি বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে চাকরি ও আয় হারানোয় সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছে দরিদ্র মানুষেরা। তাদের এই দুর্যোগ কাটিয়ে উঠতে এই প্রকল্প জরুরি ভিত্তিতে সামাজিক নিরাপত্তায় এবং গ্রামীণ পর্যায়ের অরক্ষিত মানুষের জীবিকা নির্বাহের জন্য কাজের ব্যবস্থা করা হবে। এমনকি করোনা পরবর্তী সময়ে গ্রামীণ সড়ক ও বাজার নির্মাণ এবং মহাসড়ক নির্মাণের মাধ্যমে গ্রামীণ মানুষের কাজের সুযোগ তৈরি করে দেয়া হবে।

এর আগে ১৯ জুন করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত অর্থনীতির পুনরুদ্ধার ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে বাংলাদেশকে ৮ হাজার ৯২৫ কোটি টাকা (১ দশমিক ০৫ বিলিয়ন ডলার) ঋণ দেয়ার ঘোষণা দেয় বিশ্ব ব্যাংক।