চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সড়কে প্রাণ গেল দুই ব্যান্ড শিল্পীর, সংগীতাঙ্গনে শোক

সড়কে প্রাণ গেল তরুণ দুই ব্যান্ড শিল্পী হানিফ আহমেদ ও পার্থ গুহর। এরমধ্যে একজন পারকাশন ও অন্যজন প্যাড বাদক।

শনিবার (১৩ মার্চ) ভোর ৫টার দিকে নির্ধারিত স্টেজ শোতে অংশ নিতে কক্সবাজার যাচ্ছিলেন পারকাশনিস্ট পার্থ গুহ, প্যাডিস্ট হানিফ আহমেদ, বেজ গিটারবাদক রাহাত, কণ্ঠশিল্পী বিউটি খান, গিটারিস্ট পাপ্পু আর কিবোর্ডিস্ট নন্দন। যাওয়ার পথে চট্টগ্রামের মিরসরাই এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

মিরসরাই এলাকায় উল্টো দিক থেকে আসা একটি লরি ট্রাক তাদের মাইক্রোবাসটিকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এ সময় গাড়িটি ছিটকে পড়ে বিদ্যুতের খুঁটির সাথে ধাক্কা লাগে। মারাত্মক আহত হন মাইক্রোবাসে থাকা হানিফ আহমেদ, পার্থ গুহ, বিউটি খানসহ অন্যরা।

বিজ্ঞাপন

এরমধ্যে বেজ গিটারিস্ট রাহাত নিজের ফেসবুকে এসে পরবর্তীতে দুর্ঘটনার বর্ণনা দিয়েছেন। গাড়ির একদম প্রথম সিটে ছিলেন তিনি। রাহাত জানান, আমি ছিলাম একদম সামনের সিটে, ড্রাইভারের পাশে। হানিফ ভাই (হানিফ আহমেদ), পার্থ দা (পার্থ গুহ) আর কণ্ঠশিল্পী বিউটি ছিলেন মাঝখানের সিটে। তাদের পেছনের সিটে ছিলেন গিটারিস্ট পাপ্পু আর কিবোর্ডিস্ট নন্দন।

তিনি বলেন,আমরা চট্টগ্রামের দিকে যাচ্ছিলাম। আমরা যেদিকে যাচ্ছিলাম, তার উল্টো দিকে যাবার রাস্তা ডিভাইডার দিয়ে ভাগ করা ছিল। সেদিকের রাস্তায় একটি গাড়ি অ্যাকসিডেন্ট করে আইল্যাল্ডের ওপর দিয়ে উঠে আমাদের গাড়ির ওপর সিটকে পড়ে। আমাদের গাড়িটা কয়েকবার উলটে গিয়ে ধাক্কা খায় রাস্তার পাশের একটি ইলেকট্রিক লাইনের পিলারের সঙ্গে। গাড়ির ছাদের ভেতরের অংশটি একদম চেপে যায় হানিফ ভাই, পার্থ দা ও বিউটি যেখানে বসা ছিল ঠিক সেখানে। এদের সবার মাথায় প্রচণ্ড চাপ পড়ে। সিটে বসা অবস্থায় পার্থ দাকে (পার্থ গুহ) আমরা মৃত অবস্থায় পাই। বাকিদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠাই। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজে যাওয়ার পর হানিফ ভাই মারা যান। তিনি বলেন, বিউটি এখনও আশঙ্কামুক্ত নয়।

দুই প্রিয় মিউজিশিয়ানকে হারিয়ে শোকার্ত সংগীতের মানুষ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও নিহত শিল্পীদের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছেন তারা।