চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘স্লামডগ মিলিয়নিয়ার’ অভিনেতার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ

যৌন হেনস্তার অভিযোগ উঠেছে ‘স্লামডগ মিলিয়নিয়ার’ অভিনেতা মধুর মিত্তালের বিরুদ্ধে। তার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ দায়ের করেছেন তার প্রাক্তন বান্ধবী।

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি মুম্বাইয়ের খার থানায় ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪, ৩৫৪এ, ৩৫৪বি, ৫০৯ এবং ৩২৩ ধারায় এফআইআর জারি হয়েছে মিত্তালের বিরুদ্ধে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

তবে এতদিন বিষয়টি নিয়ে মধুর মিত্তাল চুপ থাকলেও অবশেষে নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ নিয়ে মুখ খুললেন তিনি। ‘স্লামডগ মিলিয়নিয়ার’ অভিনেতা, তার বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগকে অস্বীকার করেছেন।

বম্বে টাইমসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বিষয়টি সম্পর্কে বলতে গিয়ে মধুর বলেন, ‘এই সমস্ত মিথ্যে থেকে অনেক কিছু শিখতে পেরেছি এবং বিরক্তি বোধ হচ্ছে। হোয়াটসঅ্যাপে এমন অনেক মেসেজ পেয়েছি যেগুলো আমার চরিত্রকে মেরে ফেলছে। এগুলো দিনের পর দিন কাস্টিং ডিরেক্টরদের গ্রুপে ফরওয়ার্ড করা হচ্ছে, যাতে আমার কাজে ক্ষতি হয়। সতের বছর বয়স থেকে আমি আমার পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী সদস্য, মিডিয়ার এই সমস্ত রিপোর্ট আমার উপর প্রভাব ফেলছে।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, আপনাদের ধারণার বাইরে এই মিথ্যে ঘটনাটি আমার পরিবার এবং আমার ক্যারিয়ারের ওপর কতোটা প্রভাব পড়ছে।

তিনি আরও বলেন, ‘আমি অনুরোধ করছি মিডিয়ার এই এক তরফা রিপোর্টের ভিত্তিতে আমার বিষয়ে কোন ধারণা তৈরি না করার জন্য। আইনের উপর আমার বিশ্বাস আছে, খুব শিগগির সত্যিটা বেরিয়ে আসবে।’

এদিকে অভিনেতার প্রাক্তন বান্ধবীর আইনজীবী দাবি করেছেন, তার মক্কেলের চোখের নিচে, ঘাড়ে এবং ঠোঁটে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তিনি আরও বলেন, ‘মেয়েটি তার সম্পর্কে বলার মতো পরিস্থিতিতে নেই। তার বান্ধবী আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। মেয়েটির চোখের নীচে, ঘাড়ে এবং ঠোঁটে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আমি ধরতে পেরেছি সে মারধর এবং যৌন হেনস্তার শিকার হয়েছে।

স্লামডগ মিলিয়নিয়ারে জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর মধুর একাধিক ছবির কাজ করেছেন। ‘মিলিয়ন ডলার আর্ম’, ‘পকেট গ্যাংস্টার’ এবং ‘মাতার’-এর মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। টেলিভিশন পর্দায় ‘ট্রেজার আইল্যান্ড’এ শেষবার তাকে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে।