চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

স্বল্প পুঁজি নিয়েও আফগানদের আটকে দিলো শ্রীলঙ্কা

কার্ডিফে সোফিয়া গার্ডেনের সবুজ উইকেট দুহাত মেলে দিয়েছিল দুই দলের দিকেই। সেই সুযোগে শ্রীলঙ্কাকে অল্প রানে আটকে দিয়ে নিজেরাও সুবিধা করতে পারল না আফগানিস্তান। লঙ্কান পেস তোপে আটকে গিয়ে ৩৪ রানে হেরেছে গুলবাদিনের দল!

বৃষ্টি-বিঘ্নিত ম্যাচে ২০১ রানে অলআউট হয়ে বিপদের আভাসই পেয়েছিল লঙ্কানরা। বৃষ্টির কারণে ব্যবধান আরও ১৪ রান কমে যাওয়ায় শ্রীলঙ্কার উপর চোখ রাঙাচ্ছিল আফগানরা। লঙ্কান পেসাররা সেটা হতে দেননি। ম্যাচ সেরা নুয়ান প্রদীপের আগুনে বোলিংয়ে ৩৪ রানে জিতে এবারের আসরের প্রথম জয়ের স্বাদ নিল চণ্ডিকা হাথুরুসিংহের দল।

বিজ্ঞাপন

প্রথমে ব্যাট করে মঙ্গলবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১৩৬ রানে অলআউট হওয়ার লজ্জা ভুলতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে দারুণ এক শুরুই করেছিলেন লঙ্কান দলপতি দিমুথ করুনারত্নে ও কুশল পেরেরা। ১৩ ওভারেই দুজনে এনে দেন ৯২ রানের সংগ্রহ।

কিন্তু ১৪তম ওভারের প্রথম বলে মোহাম্মদ নবীর ঘূর্ণিতে বোল্ড হয়ে ইনিংসে মড়ক লাগিয়ে যান অধিনায়ক করুনারত্নে। আট ওভার পরেই লাহিরু থিরিমান্নেকে (২৫) বোল্ড করে লঙ্কান ইনিংসে ধস নামান নবী। এরপর একে একে কুশল মেন্ডিস (২) ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসকে (০) খালি হাতে ফিরিয়ে দেন আফগান অলরাউন্ডার।

একপ্রান্তে ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়ার মিছিলে অন্যপ্রান্তটা সামলে রেখেছিলেন ওপেনার কুশল পেরেরা। কিন্তু লেগ-স্পিনার রশিদ খানকে রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিলে ভাঙে তার ৭৮ রানের প্রতিরোধ। ১৮০ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে তখন দুইশোর নিচে গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কায় লঙ্কানরা।

বিজ্ঞাপন

তখন লঙ্কানদের ত্রাতা হয়ে আকাশ কাঁপিয়ে নামে বৃষ্টি। দেড়ঘণ্টা পর যখন খেলা শুরু হল, তখন ম্যাচ নেমে এসেছে ৪১ ওভারে। শেষ দুই উইকেটে ২১ রান যোগ করে থামে করুনারত্নেদের ইনিংস। বৃষ্টি আইনে আফগানদের সামনে নতুন লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৮৭।

৩০ রানে ৪ উইকেট নিয়ে শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং লাইনআপ গুঁড়িয়ে দিয়েছেন নবী। ২টি করে উইকেট নিয়েছেন দৌলত জাদরান ও রশিদ খান।

মাঝারি রান নিয়েও লঙ্কানদের ভরসার জায়গা ছিল কার্ডিফের সবুজ উইকেট। সেই উইকেটেই একের পর এক তোপ দাগলেন লঙ্কান পেসাররা। পঞ্চম ওভারে ওপেনার মোহাম্মদ শেহজাদকে (৭) ফেরান লাসিথ মালিঙ্গা। সেই শুরু। ৫৭ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে তখন থেকে হার দেখা শুরু আফগানদের।

ষষ্ঠ উইকেটে ৬৪ রানের জুটিতে ক্ষতি পোষানোর চেষ্টা করেছিলেন আফগান দলপতি গুলবাদিন নায়েব ও নাজিবুল্লাহ জাদরান। ২৩ রান করা গুলবাদিনকে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলেন প্রদীপ।

এরপরও উইকেটে নাজিবুল্লাহ জাদরান থাকায় ম্যাচটা মুঠোতে পুরতে পারছিল না শ্রীলঙ্কা। নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে নাজিবুল্লাহ ৪৩ করে রান আউটে কাঁটা পড়া মাত্রই জয়টা প্রায় নিশ্চিত হয়। শেষ উইকেটে হামিদ হাসান মালিঙ্গার বলে বোল্ড হলে ৫০ বল আগেই ১৫২ রানে অলআউট হয় আফগানরা।

৩১ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা হয়েছেন প্রদীপ। ৩৯ রান খরচায় ৩ উইকেট পেয়েছেন মালিঙ্গা।

Bellow Post-Green View