চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

স্টপ সাইবার বুলিং ডে: ভিডিওবার্তায় সোচ্চার দেশের তারকারা

ইন্টারনেটে হয়রানিমূলক আচরণ ও কটূক্তি বন্ধে ২০১২ সাল থেকে প্রতি বছর জুনের তৃতীয় শুক্রবার বিশ্বজুড়ে পালিত হচ্ছে ‘স্টপ সাইবার বুলিং ডে’। এবার দিবসটি পালিত হচ্ছে ১৮ই জুন। দিনটিকে সামনে রেখে বাংলাদেশে হ্যাশট্যাগ মাই রেসপন্স (#MyResponse)- শীর্ষক সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন পরিচালনা করেছে জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচি- ইউএনডিপি বাংলাদেশ এবং সোশ্যাল মিডিয়া ইমপ্যাক্ট প্ল্যাটফর্ম ‘পাঁচফোড়ন’।

পাঁচফোড়নের আয়োজনে এবং ইউএনডিপি বাংলাদেশ ও ‘ডিজিটাল খিচুড়ি চ্যালেঞ্জ’ এর সহযোগিতায় ৯ থেকে ১৮ জুন প্রতিদিন বাংলাদেশি তারকাদের অংশগ্রহণে সাইবার বুলিংয়ের বিরুদ্ধে সচেতনতামূলক ভিডিও প্রকাশ করা হয়। গত ৯ জুন ইউএনডিপি ও পাঁচফোড়নের ইউটিউব চ্যানেল ও ফেসবুক পেইজে অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীর একটি ভিডিওবার্তা প্রকাশের মধ্য দিয়ে উদ্যোগটির যাত্রা শুরু। ১০ দিনে সাইবার বুলিংবিরোধী ১০টি ভিডিও প্রকাশের এই ক্যাম্পেইনে চঞ্চল চৌধুরী ছাড়াও অংশ নেন কণ্ঠশিল্পী পার্থ বড়ুয়া, অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা, আশনা হাবিব ভাবনা, মুমতাহিনা চৌধুরী টয়া, বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের সদস্য জাহানারা আলম, বাংলাদেশের প্রথম ট্রান্সজেন্ডার সংবাদ পাঠক তাসনুভা আনান শিশির, কার্টুনিস্ট মোরশেদ মিশু, লেখক সাদাত হোসাইন ও কনটেন্ট ক্রিয়েটর মাশরুর ইনান।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ভিডিওগুলোতে তারকারা অনলাইনে তাদেরকে হেয় করে পোস্ট করা কুরুচিকর কিছু মন্তব্য পড়েন ও শোনেন এবং যারা এসব কমেন্ট করছে নেটিজেনদের নৈতিক অবস্থানে কেমন পরিবর্তন আসা উচিৎ – সে ব্যাপারে পরামর্শ দেন। ১০ দিনের ‘#MyResponse’ ক্যাম্পেইনের স্লোগান ছিলো ‘অনলাইন হয়রানির বিরুদ্ধে রেসপন্স করাই আমাদের রেসপন্সিবিলিটি’। তারকাদের পাশাপাশি সাধারণ নেটিজেনরাও এই উদ্যোগে শামিল হন।

সম্প্রতি মা দিবসে মায়ের সাথে দেয়া একটি ছবিতে কুরুচিপূর্ণ কমেন্টের শিকার হয়েছিলেন অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। অনলাইনে তিক্ত অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হওয়া অনেক তারকাই তখন প্রতিবাদে শামিল হন। অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী বলেন, আমরা চুপ থাকি বলেই সাইবার বুলিংয়ের মতো অপরাধ করা ব্যক্তিরা শক্তিশালী হচ্ছে। তাই সতর্ক থাকতে হবে এবং প্রতিবাদও করতে হবে।

এই ক্যাম্পেইন সতর্কতা গড়ে তোলার পাশাপাশি অনলাইনে হয়রানি বন্ধে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে বলে আশা আয়োজকদের।

বিজ্ঞাপন