চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সৌমিত্রকে নিয়ে কাটছে না শঙ্কা

করোনা মুক্ত হওয়ার সপ্তাহ পার হলেও শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ ও আশঙ্কায় সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়

করোনা মুক্ত হওয়ার এক সপ্তাহ হয়ে গেলেও শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ ও আশঙ্কা কাটছে না ফেলুদা খ্যাত বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের। শারীরিক অবস্থা ক্ষাণিকটা স্থিতিশীল থাকলেও মঙ্গলবার রাত থেকে স্নায়ূজনিত সমস্যায় ভূগছেন তিনি।

হাসপাতাল সূত্রের খবর, স্টেরয়েডের ডোজ কমানোর পরই আচ্ছন্ন ভাব বেড়ে গিয়েছে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের। শুধু তাই নয়, প্রবীণ এই অভিনেতার মস্তিষ্কের চেতনাও নাকি হ্রাস পেয়েছে। আর তাইতো আবারও তার জন্য নতুন করে গঠন করা বিশেষ মেডিক্যাল বোর্ডে যোগ করা হয়েছে পাঁচ স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞকে।

বিজ্ঞাপন

চিকিৎসকের বরাতে কলকাতার গণমাধ্যম বলছে, বিগত কয়েক দিন ধরেই উচ্চমাত্রার স্টেরয়েড দেওয়া হচ্ছিল সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে। তাই খানিকটা সুস্থ হতেই অভিনেতার স্টেরয়েডের মাত্রা কমানো হয়েছিল। স্টেরয়েড ছাড়া মাথা কেমন কাজ করে, সেটাই দেখার অপেক্ষায় ছিলেন সৌমিত্র চট্টোপ্যাধায়ের চিকিৎসার দায়িত্বে থাকা ডা. অরিন্দম কর পরিচালিত মেডিক্যাল টিমটি।

কিন্তু সেখানেই শুরু হয় সমস্যার সূত্রপাত। যদিও সৌমিত্র চট্টোপ্যাধায়ের শারীরিক কোন সমস্যার এখন পর্যন্ত দেখা মিলেনি। তার হার্ট, কিডনি, লিভার সবই সঠিকভাবে কাজ করছে বলেও জানিয়েছেন দায়িত্বরত চিকিৎসকরা।

গত ৬ অক্টোবর করোনা আক্রান্ত হয়ে সৌমিত্র ভর্তি হয়েছিলেন বেলেভিউ হাসপাতালে। শুরুর দিকে তার শারীরিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলেও পরবর্তীতে তা আচমকাই অবনতি হলে তাকে আইসিইউতে স্থানান্তরিত করা হয়। এরপর তাকে যথাযথ চিকিৎসা দেওয়ায় তার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসলেও বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা অবনতির দিকে।