চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সোহেল হত্যার বিচার চাইলেন ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক উপ-শিক্ষা ও পাঠচক্র সম্পাদক এবং চট্রগ্রাম কমার্স কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. মহিউদ্দিন সোহেলের নৃশংস হত্যার বিচার চেয়ে বিবৃতি দিয়েছেন ছাত্রলীগের সাবেক নেতৃবৃন্দ।

হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে আগামীকাল রোববার সকাল সাড়ে ১১টায় ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটিতে (ডিআরইউ) এক সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন তারা।

শনিবার এক বিবৃতিতে সোহেল হত্যা ও তাকে নিয়ে মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে এ কর্মসূচির ঘোষণা দেয়া হয়।

এরআগে, বাদ আছর নিহত সোহেলের রুহের মাগফেরাত কামনায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক নেতৃবৃন্দ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন।

ওই দোয়া মাহফিলে ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন ও সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি শেখ সোহেল রানা টিপু, সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ সাকিব বাদশাসহ ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দ অংশ নেন।

Advertisement

গত ৭ জানুয়ারি সোহেলকে চট্টগ্রাম পাহাড়তলী রেলওয়ে বাজারে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়।

তবে সোহেলকে গণপিটুনির নামে পরিকল্পিতভাবে হত্যার অভিযোগ করে সংবাদ সম্মেলন করেন পরিবারের সদস্যরা। তাদের দাবি, স্থানীয় কাউন্সিলর সাবের আহমদ সওদাগর ও জাতীয় পার্টির নেতা ওসমান খান পরিকল্পিতভাবে সোহেলকে গণপিটুনির নামে খুন করেছেন।

পুলিশের সুরতহাল প্রতিবেদনেও সোহেলের শরীরে ২২টি গভীর ক্ষতচিহ্ন আছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, এসব ক্ষতের কারণে দ্রুত রক্তক্ষরণ হয়ে মারা গেছেন সোহেল। তার কপালের বাম পাশে, মাথার ডান পাশে ও পেছনে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের দাগ রয়েছে। ডান কাঁধে, পেটের বাম পাশে, বুকের নিচে, শরীরের পেছনে ও ঊরুতে ১৩টি এবং বাম পায়ে দুটি গভীর ক্ষত রয়েছে।

ধারণা করা হচ্ছে দা দিয়ে কুপিয়ে বা ছুরিকাঘাত করে তাকে হত্যা করা হয়েছে।