চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সেন্টমার্টিনে ট্রলার ডুবি, ৪ লাশ উদ্ধার

নিখোঁজ ১০

সেন্টমার্টিনের অদূরে বঙ্গোপসাগরে ফিশিং ট্রলার ডুবির ঘটনায় ৪ জনের লাশ উদ্ধার করেছে নৌবাহিনী ও কোস্ট গার্ডের সদস্যরা। এ ঘটনায় আরও ১০ জেলে নিখোঁজ রয়েছে।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ রেজা-উল করিম শাম্মী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বঙ্গোপসাগরে ২৬ জন জেলে নিয়ে ডুবে গেছে মাছ ধরা ট্রলার ‘জানজাবিন সোমকেন’।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এখন পর্যন্ত ১২ জন জীবিত ও চার জনের মৃতদেহ উদ্ধার। বাকিদের উদ্ধারে কাজ করছে নৌবাহিনী।

বিজ্ঞাপন

শনিবার ভোরে সেন্টমার্টিন থেকে প্রায় ৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরে ২৬ মাঝিমাল্লাসহ এফবি ‘জানজাবিল সোমকেন’ নামের মাছ ধরার ট্রলারটি ডুবে যায়। এর কয়েক ঘণ্টা পর সেন্টমার্টিনের পশ্চিমে সাগরে ভাসতে থাকা লাশগুলো উদ্ধার করা হয়। তবে তাদের পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি।

টেকনাফ কোস্টগার্ড স্টেশনের কর্মকর্তা লে. কমান্ডার এম মানসুরুল মাহদীন জানান, ভোরে সেন্টমার্টিন দ্বীপ থেকে দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরে ফিশিং ট্রলারটি ডুবে যায়। এ ঘটনায় কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনীর সদস্যরা তল্লাশি চালিয়ে চার জনের লাশ এবং জীবিত অবস্থা ১২ জনকে উদ্ধার করে। নিখোঁজ জেলেদের সন্ধানে কোস্টগার্ডের দু’টি ও নৌবাহিনীর দু’টি জাহাজ নিয়ে উদ্ধার অভিযান চলছে।

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর আহমদ জানান, ট্রলার ডুবির ঘটনায় আরও ১০ জন নিখোঁজ রয়েছে বলে জানা গেছে। তবে ডুবে যাওয়া ট্রলারটি সেন্টমার্টিনের নয়।

ট্রলারটির মালিক চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলা চরলক্ষ্যা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী জানান ঘন কুয়াশায় ও দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে।ট্রলারটি চট্টগ্রামের কর্ণফুলী থেকে এক সপ্তাহ আগে সাগরে মাছ ধরতে গিয়েছিল।