চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশকে জেতালেন নিগার

অপরাজিত সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ নারী ইমার্জিং দলকে সহজ জয় উপহার দিলেন নিগার সুলতানা জ্যোতি। সিলেটে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে টাইগ্রেস অধিনায়কের ১০০ রানের ইনিংসে সাউথ আফ্রিকার মেয়েরা উড়ে গেছে ৭ উইকেটে।

প্রোটিয়া মেয়েদের দেয়া ১৯৭ রানের লক্ষ্য বাংলাদেশ ইমার্জিং দল টপকায় ৪৫.৩ ওভারে মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে। পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-০তে এগিয়ে থাকল স্বাগতিকরা।

তিন অঙ্ক ছুঁয়ে অপরাজিত থাকা নিগারের ১৩৫ বলের ইনিংসে চারের মার ছিল ১১টি। রুমানা আহমেদ অপরাজিত থাকেন ৪৬ রানে। তার ৬৯ বলের ইনিংসে চারের মার চারটি।

নিগার ও রুমানা চতুর্থ উইকেট জুটিতে অবিচ্ছিন্ন থেকে যোগ করেন ১১৬ রানে। এই জুটিই সহজ জয়ের পথ দেখায়।

টাইগ্রেস ওপেনার মুর্শিদা খাতুন হ্যাপি করে যান ২১ রান। এ বাঁহাতির ২৫ বলের ইনিংসে চারের মার চারটি। ফারজানা হক পিংকি করেন ১৫ রান। ৭ রান করে আউট হন আরেক ওপেনার শামীমা সুলতানা।

৮১ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর নিগার ও রুমানার অসাধারণ ব্যাটিংয়ে হেসেখেলে ৭ উইকেটের জয় তুলে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ ইমার্জিং দল।

বিজ্ঞাপন

সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৯৬ রান তোলে প্রোটিয়া মেয়েরা।

এন্ড্রি স্টেইন যখন ছুটছিলেন সেঞ্চুরির পথে, সাউথ আফ্রিকার ইমার্জিং মেয়েরা হাঁটছিল লড়াকু পুঁজির দিকে। নিজের দশম ওভারে বোলিংয়ে এসে ৮০ রান করা এন্ড্রিকে এলবিডব্লিউ করে অতিথিদের ব্যাটিংয়ে ছন্দপতন ঘটান সালমা খাতুন।

আগের ম্যাচের মতো সাউথ আফ্রিকা এদিনও শুরুটা পেয়েছিল দারুণ। স্টেইন ও রবি শার্লি ওপেনিং জুটিতে যোগ করেন ৫৭ রান। রিতু মনির বলে উইকেটরক্ষক শামীমা সুলতানার হাতে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ১৯ রানে সাজঘরে ফেরেন শার্লি।

পরে দ্রুত আরও দুই উইকেট হারায় সাউথ আফ্রিকা। ৬৮ রানে ৩ উইকেট হারায় সফরকারীরা।

স্টেইন ও আনেক বোষ চতুর্থ উইকেটে ৭৮ রানের জুটি গড়ে বড় সংগ্রহের ভিত এনে দেন। স্টেইন আউট হওয়ার পরের ওভারেই আনেক সাজঘরে ফেরায় প্রত্যাশিত পুঁজি পায়নি প্রোটিয়ারা।

সফরকারী ওপেনার স্টেইন ৩৯তম ওভার পর্যন্ত ব্যাটিং করে ১১৮ বলে সাতটি চারে খেলেন ৮০ রানের ইনিংস। আনেকে বোষ করেন ৪২ রান। ৫৮ বলের ইনিংসে ছিল দুটি চার ও একটি ছক্কা।

রিতু মনি ও নাহিদা আক্তার নেন তিনটি করে উইকেট। একটি উইকেট নিয়েছেন সালমা।

বিজ্ঞাপন