চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সেই শেরপুরের পথে কামারুজ্জামানের মরদেহ

ফাঁসির দণ্ড কার্যকরের পর সোহাগপুরের ঘাতক কামারুজ্জামানের মরদেহ পুলিশ প্রহরায় তার গ্রামের বাড়ি শেরপুরের নেয়া হচ্ছে। রাত সাড়ে ১১টার দিকে কামারুজ্জামানের মরদেহ নিয়ে রওনা হয় একটি অ্যাম্বুলেন্স। রাত ১০টার পর ফাঁসিতে ঝুলানো হয় এ শীর্ষ যুদ্ধাপরাধীকে।

এর আগে রাত ১০টার পর তাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দণ্ড কার্যকর করা হয়। জল্লাদ রাজুর নেতৃত্বে পল্টু, শামসু, রণি ও রিপন ফাঁসির প্রক্রিয়া শেষ করেন।

বিকালে
কামারুজ্জামানের সঙ্গে শেষ দেখা করে তার  বড় ছেলে
হাসান ইকবাল ওয়ামি জানান,
শেরপুরে গ্রামের বাড়িতে কামারুজ্জামানের দাফন হবে।

সেই সোহাগপুর: কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছিল, তার নেতৃত্বে শেরপুর জেলার নলিতাবাড়ি উপজেলার সোহাগপুর গ্রামে নৃশংস গণহত্যা চলানো হয়। কামারুজ্জামানের পরিকল্পনায় ও নির্দেশে ৭১ সালের ২৫ জুলাই ভোরবেলা রাজাকার, আলবদরসহ সেনাবাহিনী সোহাগপুর গ্রাম ঘিরে ফেলে। এরপর বাড়ি বাড়ি গিয়ে পুরুষদের হত্যা করে। এদিন ওই গ্রামের প্রায় ১৭০ জন মহিলাকে ধর্ষণ ও নির্যাতন করা হয়।

এরপর থেকে ওই গ্রাম ‘বিধবাপল্লী’ নামে পরিচিত লাভ করে।

কামারুজ্জামানের
বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছিল, তার নেতৃত্বে শেরপুর জেলার নলিতাবাড়ি উপজেলার
সোহাগপুর গ্রামে নৃশংস গণহত্যা চলানো হয়। কামারুজ্জামানের পরিকল্পনায় ও
নির্দেশে ৭১ সালের ২৫ জুলাই ভোরবেলা রাজাকার, আলবদরসহ সেনাবাহিনী সোহাগপুর
গ্রাম ঘিরে ফেলে। এরপর বাড়ি বাড়ি গিয়ে পুরুষদের হত্যা করে। এদিন ওই গ্রামের
প্রায় ১৭০ জন মহিলাকে ধর্ষণ ও নির্যাতন করা হয়।

এরপর থেকে ওই গ্রাম ‘বিধবাপল্লী’ নামে পরিচিত লাভ করে।

– See more at:
http://dev.channelionline.com/news/details/%e0%a6%af%e0%a7%87-%e0%a6%85%e0%a6%ad%e0%a6%bf%e0%a6%af%e0%a7%8b%e0%a6%97%e0%a7%87-%e0%a6%ab%e0%a6%be%e0%a6%81%e0%a6%b8%e0%a6%bf#sthash.GBHhs1qp.dpuf

বিজ্ঞাপন


বিজ্ঞাপন