চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সেই শিক্ষার্থীকে ক্ষমা করলেন বাবুল সুপ্রিয়

অসুস্থ মায়ের আর্তি

ছেলের হয়ে ক্ষমা চেয়ে তার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নিতে আকুতি করায় যাদবপুরে মারমুখি সেই শিক্ষার্থীকে ক্ষমা করে দিয়েছেন ভারতের জনপ্রিয় গায়ক ও কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়।

বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি অনুষ্ঠানে অতিথি হয়ে গিয়ে বিক্ষোভ ও অবরোধের মুখে পড়েন বাবুল সুপ্রিয়। তার অভিযোগ, এ সময় তার চুল ধরে টানা হয় এবং চড়, ঘুঁষি মেরে জামাও ছিঁড়ে দেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

বাবুলের চুল ধরে টানছে এক যুবক, এমন ছবিও ধরা পড়েছে সংবাদ মাধ্যমের ক্যামেরায়। সেই ছবির সাহায্যেই অভিযুক্তকে ফেসবুক থেকে খুঁজে বের করেন বাবুল সুপ্রিয়।

বাবুল সুপ্রিয় এর মতে, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে দেবাঞ্জন ওরফে পিকু নামের ছেলেটি তাকে নিগ্রহ করেছে।  তাকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

যাদবপুরে মন্ত্রীর সঙ্গে মারমুখী ছেলের ছবি দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন দেবাঞ্জন বল্লভের ক্যান্সার আক্রান্ত মা। পরিণতি কতোটা ভয়াবহ হতে পারে তা বুঝতে পেরে ছেলের কাজে লজ্জিত হয়ে হাতজোড় করে ক্ষমা চেয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

মায়ের আর্তি, ক্যান্সার আক্রান্ত মায়ের কথা ভেবে ছেলের অপরাধ যেন ক্ষমা করে দেন বাবুল সুপ্রিয়।

মায়ের এই আকুতির পর বাবুল সুপ্রিয় নিজের টুইটারে লিখেছেন, তিনি দেবাঞ্জনের বিরুদ্ধে কোনো রকমের পদক্ষেপ গ্রহণ করছেন না।  তিনি মনে করছেন, দেবাঞ্চন বল্লভ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীও নয়।  তিনি চান, পুরো পরিস্থিতি দেখে সে বুঝতে পারবে এবং শিক্ষা নিবে।

বাবুল সুপ্রিয় ওই ছেলের অসুস্থ মাকে লক্ষ্য করে বলেন, দয়া করে কোনো দুশ্চিন্তা করবেন আন্টি। আমি কোনোভাবে আপনার সন্তানকে আঘাত করবো না। আমি শুধু চাই সে তার ভুল থেকে শিক্ষা গ্রহণ করুক। আমি তার বিরুদ্ধে কাউকে বা কোনো পুলিশকে অভিযোগ করিনি এবং কাউকে তা করতেও দিব না। আপনার দুশ্চিন্তা দূর করুন এবং দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুন।

দেবাঞ্জন বল্লভ এর মা রূপালি তিন বছর ধরে ক্যান্সারে আক্রান্ত। তিনি কান্নাজড়িত কণ্ঠে গণমাধ্যমের সামনে ছেলের হয়ে বাবুল সুপ্রিয়ের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

বল্লভ উত্তর কলকাতা কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।  এই ঘটনার পর সেও ফেসবুকে নিজের নতুন আইডি খুলে সেদিনের ঘটনার জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করেছে।

Bellow Post-Green View