চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সেই নবজাতককে দত্তক নিতে আগ্রহীদের সংখ্যা বাড়ছেই

রাজধানীর শিশু হাসপাতালের বাথরুম থেকে উদ্ধার করা নবজাতকটিকে দত্তক নিতে আগ্রহীদের সংখ্যা বাড়ছেই। শত শত ফোন আসছে শেরে বাংলা নগর থানায়। পুলিশ জানিয়েছে, নবজাতকটির প্রকৃত বাবা-মাকে খুঁজতে তারা সাধ্যমতো চেষ্টা করে যাচ্ছে।   

এছাড়া হাসপাতালে ফুটফুটে মেয়ে শিশুটিকে দেখতে ও দত্তক নিতে ভিড় করছেন শতাধিক মানুষ। নিরাপত্তার জন্য শিশু হাসপাতালের ওই কেবিনের বাইরে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার দুপুরে ওই নবজাতককে হাসপাতালের টয়লেটে দেখে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানান এক রোগীর স্বজন। শিশুটির বয়স আনুমানিক ৩ দিন। উদ্ধারের পর শিশুটিকে ওই হাসপাতালেই ভর্তি করা হয়েছে।

অন্যদিকে শিশুটির বাবা-মাকে খুঁজতে তদন্ত করছে পুলিশ। বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত তার বাবা-মাকে পাওয়া যায়নি। হাসপাতাল ও আশপাশের সিসিটিভি ক্যামেরা ফুটেজ দেখে শিশুটিকে কে বা কারা ফেলে গেছেন সেই রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা করছে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

পুলিশের তেজগাঁও জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) মাহমুদ হাসান চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, আমরা তার বাবা-মাকে খুঁজে বের করতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। পরবর্তীতে শিশু আইনে আদালত যা সিদ্ধান্ত দেবে পুলিশ সেটা মেনেই কাজ করবে।

তিনি বলেন, শিশুটির বাবা-মাকে খুঁজতে রাতে ডিসি-তেজগাঁও-ডিএমপি ফেসবুক পেজে ছবিসহ একটি পোস্ট দেওয়া হয়। এরপর থেকে অনেক ফোন আসছে শিশুটিকে দত্তক নেওয়ার জন্য। অনেকে ফেসবুক পোস্টের নিচেই তাদের দত্তক নেয়ার জন্য নাম-ঠিকানা ও সিরিয়াল দিয়ে রাখছেন।

শেরে বাংলা নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানে আলম বলেন, রাত থেকেই শিশুটিকে দেখতে ও দত্তক নিতে হাসপাতালে অনেকেই ভিড় করেছেন। এতে শিশুর স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ার আশঙ্কা শিশু হাসপাতালে তার কেবিনের বাইরে পুলিশ মোতায়েন করেছি। চিকিৎসক ও তদন্ত সংশ্লিষ্ট ছাড়া কাউকে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না।

নবজাতকের শারীরিক অবস্থার বিষয়ে শিশু হাসপাতালের জনসংযোগ কর্মকর্তা এম এ হাকিম  বলেন, শিশুটি এখনো চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার শারীরিক অবস্থা ভালো আছে।

Bellow Post-Green View