চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সুলতানকে নিয়ে শেখ সাদীর নতুন জার্নি

আর ভিউয়ের দিকে তাকানো নয়, সুলতানকে নিয়ে সংগীতশিল্পী শেখ সাদীর নতুন জার্নি

গান লিখতেন। গুণগুণ করে গাইতেন। বন্ধুদের আড্ডায় সেইসব গান ভিন্নমাত্রা যোগ করতো। মজা করতে করতে লিখে ফেলেন ‘ললনা’। ২০১৮ সালের নভেম্বরে গানটি প্রকাশের পর রাতারাতি ‘তারকাখ্যাতি’ পান তরুণ শিল্পী শেখ সাদী।

আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি। এরমধ্যে অনেকগুলো গান করে তিনি প্রশংসা পেয়েছেন। নতুন বছরে সাদীর নতুন গান ‘আমার তুমি নাই’ প্রকাশ পেয়েছে। যে গানে তার সঙ্গে সুলতান নামে আরও একজন কণ্ঠ দিয়েছেন। মূলত দেড় বছর আগে শুটিংয়ে তার গান শুনে মুগ্ধ হওয়ায় তাকে নিয়ে শেখ সাদীর এই নতুন জার্নি।

বিজ্ঞাপন

চ্যানেল আই অনলাইনকে শেখ সাদী বলেন, আমারই ‘নেই হয়ে আছো তুমি প্রাণে’ গানের শুটিংয়ে সুলতান সহকারী পরিচালক ছিল। সেখানে গিটার বাজিয়ে নিজে নিজে গাইছিল। খুব হাই স্কেলে, ভালো ফিল দিয়ে গাইতে পারে। আমি তাকে আগে থেকে চিনতাম না। গান শুনে এতো ভালো মনে হয়েছে এই ছেলেটাকে সুযোগ দিলে সে ভালো করবে। তাই তাকে ভেবেই একটা গান লিখি। ভিউস দিয়ে প্রকাশ হওয়া গানটি বিচার করবো না। লাইক ও কমেন্টসে প্রচুর পজিটিভ প্রতিক্রিয়া পাচ্ছি।

এ গানের কথা সুর করেছেন শেখ সাদী নিজেই। সংগীত আয়োজন করেছেন আলভী। ভিডিও সোহেল রাজ এবং সম্পাদনা ও কালার করেছেন রেজাউল রাজু। ‘আমার তুমি নাই’ গানটি প্রকাশ পেয়েছে শেখ সাদীর নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে।

তিনি বলেন, আমার টার্গেট ছিল কিছু গায়ককে আমি নিজে পরিচিত করিয়ে দেব। মানুষ গ্রহণ করবে কিনা সেটা তাদের ব্যাপার। আমি শুরুতেই কথা দিয়েছিলাম, তাকে নিয়ে গান করবো। নতুন এ গানটি লিখতে সময় লেগেছে। কারণ, এই ধাঁচে গান আমি লিখি না।

প্রত্যাশা ছিল, যারা গানটি শুনবে পছন্দ করবে। কারণ গানের কথা ব্যবহার করেছি খুব ‘র’। প্রেম সবাই করেছি। প্রেমের ফিল সবাই বুঝি। গানটির ভিডিও গল্পে রেখেছি। প্রেমের ভিডিওতে বার্তা দিয়েছি, প্রেমে ধোকা খেলে ক্যানভাসটা একই থাকে। সে এই প্রথম মৌলিক গান করলো। চেষ্টা করবো তাকে নিয়ে আরও গান করার। এবং এমন নতুন প্রতিভাবান মনে হলে তাদের নিয়ে গান করে যাবো।

নিজের সংগীত অভিজ্ঞতা থেকে শেখ সাদী বলেন, অডিয়ান্সের থেকে যে পরিমাণ রেসপন্স আমি পাচ্ছি এতোটা ডিজার্ভ করি না। কারণ আমি সেভাবে গান শিখে আসি নাই। যতটুকু চেষ্টা করে কাজ করেছি মানুষ বেশি গ্রহণ করেছে। এখন আমি ভিউস হিসেব করে গান করি না। ভিউস হিসেবে করলে আরও দশটি ললনা বানাতে পারতাম।

তিনি আরও বলেন, গত বছর বেশি গান দিতে পারিনি। এতে করে আমার শ্রোতা দর্শকরা হতাশ হয়েছেন। মূলত কোয়ালিটি ধরে রাখার জন্য দেরিতে গান করতাম। এখন আমার চমৎকার একটি মিউজিক টিম তৈরি হয়েছে। তাই এখন থেকে কাজগুলো করা কিছুটা সহজ হয়ে যাবে। এবার পরিকল্পনা রয়েছে প্রতিমাসে একটি করে গান উপহার দেব। আসন্ন ভালোবাসা দিবসেই আমার নতুন দুটি গান প্রকাশ পাবে।