চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সিলেটের জঙ্গি আস্তানায় শক্তিশালী বিস্ফোরণের শব্দ

সিলেট মহানগরের দক্ষিণ সুরমার শিববাড়ি এলাকার সন্দেহভাজন জঙ্গি আস্তানা আতিয়া মহলের ভেতরে রোববার বেলা পৌনে ১২টার দিকে শক্তিশালী বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া গেছে। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

এরআগে সকাল থেকেই সেখানে থেমে থেমে গুলির শব্দ শুনতে পাওয়া যায়। এছাড়াও সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে আতিয়া মহল থেকে চারটি গ্রেনেড বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়। এ সময় সেনাবাহিনীর প্যারা-কমান্ডোরাও পাল্টা গুলি করে।

শনিবারের বোমা হামলার পর আতিয়া মহলের প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের হুমায়ূন রশীদ চত্বরে ব্যারিকেড দিয়েছে পুলিশ। গণমাধ্যমকর্মীসহ কাউকেই সেখানে যেতে দেওয়া হচ্ছে না।

পুলিশ চেকপোস্টে রক্তাক্ত হামলায় জালালাবাদ থানার ওসি (তদন্ত) মনিরুল ইসলামসহ ৬ ব্যক্তি নিহত হওয়ার পর পুরো এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। এরই মধ্যে সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। পুরো এলাকায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। বাইরে থেকে জঙ্গিদের কোনো অংশ যাতে আক্রমণ করতে না পারে সে কারণে গোটা দক্ষিণ সুরমা এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যার ওই হামলার পরপরই মূলত জনশূন্য হয়ে পড়ে পুরো এলাকা। সেখানে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ঘটনাস্থলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ছাড়া অন্য কাউকে যেতে দেয়া হচ্ছে না। এমনকি সাংবাদিকদেরও ঘটনাস্থল এবং এর আশপাশে থাকতে নিষেধ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এই হামলায় নিরাপত্তা ব্যবস্থায় কোনো গাফিলতি ছিলো না বলে রোববার সাংবাদিকদের জানিয়েছেন সিলেটের পুলিশ কমিশনার। আর যেন কোনো প্রাণহানী না ঘটে, সে জন্যই এমন কড়াকড়ি । রোববার সকালে ঘটনাস্থল থেকে বোমার স্প্লিন্টার সংগ্রহ করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত থেকে শুরু করে ৩০ ঘণ্টারও বেশি সময় অবরুদ্ধ করে রাখা ওই বাড়িতে শনিবার সকালে অপারেশন ‘টোয়াইলাইট’ সাংকেতিক নাম দিয়ে অভিযান শুরু করে সেনাবাহিনীর ১৭ পদাতিক ডিভিশনের প্যারা-কমান্ডো ব্যাটালিয়ন।

এর আগে ওই বাড়ির এক কিলোমিটারের মধ্যে অবস্থান করা সাধারণ মানুষ ও সংবাদকর্মীকে সরিয়ে দেয়া হয়। সেখানকার বিদ্যুৎ, পানি ও গ্যাস সংযোগও বিচ্ছিন্ন করা হয়।এর মাঝে ৭৮ জনকে অক্ষত উদ্ধার করে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

পাঠানপাড়া সড়কের পাশে অবস্থিত পাঁচতলা ও চারতলাবিশিষ্ট দুটি ভবনের মালিক সিলেট নগরীর আতিয়া ট্রাভেলসের স্বত্ত্বাধিকারী দক্ষিণ সুরমার শিববাড়ির বান্দরঘাটের (বন্দরঘাট) বাসিন্দা উস্তার মিয়া।

গত জানুয়ারি মাসে প্রাণ কোম্পানির অডিট অফিসার পরিচয়ে কাওসার আহমদ ও মর্জিনা বেগম ওই বাড়ি ভাড়া নেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন