চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সিরিয়া-তুরস্ক সংঘর্ষ ঠেকাবে রাশিয়া

তুর্কি ও সিরীয় বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষকে ‘অগ্রহণযোগ্য’ উল্লেখ করে এমন সংঘর্ষ মেনে নেবে না বলে জানিয়েছে রাশিয়া।

তুরস্কের সেনাবাহিনী সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে অভিযান চালিয়ে এগোচ্ছে। এদিকে উত্তর-পূর্ব সীমান্ত এলাকায় কুর্দিদের আহ্বানে সাড়া দিয়ে তুর্কিদের বিরুদ্ধে লড়তে অবস্থান নিয়েছে সিরিয়ার সরকারি বাহিনী।

বিজ্ঞাপন

এখন পর্যন্ত শুধু কুর্দি যোদ্ধাদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়েছে তুরস্ক। কিন্তু এবার সিরীয় সেনাবাহিনীর সহায়তা পেতে যাচ্ছে কুর্দিরা। ফলে তুর্কি এবং কুর্দি-সিরীয় বাহিনীর মধ্যে উত্তরাঞ্চল যে কোনো সময় শুরু হতে পারে লড়াই।

আর সেই লড়াই হতে না দেয়ার ঘোষণাই দিয়েছে সিরীয় প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের অন্যতম বন্ধু রাষ্ট্র রাশিয়া।

‘এই সংঘর্ষ একেবারেই অগ্রহণযোগ্য হবে… আর তাই আমরা এটি হতে দেবো না,’ বলেছেন সিরিয়া বিষয়ে মস্কোর বিশেষ দূত আলেক্সান্ডার লাভরেনতিয়েভ। তিনি অভিযোগ করেন, তুরস্ক ‘লাইন অব কন্ট্যাক্ট’ ভঙ্গ করেছে।

বিজ্ঞাপন

সেই সঙ্গে তুরস্ককে সংযত হওয়ার আহ্বানও জানিয়েছেন এই বিশেষ দূত।

বিবিসি জানায়, সিরিয়া বিষয়ে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের সঙ্গে ইতোমধ্যে টেলিফোনে কথা বলেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এ বিষয়ে আলোচনার জন্য এরদোগানকে রাশিয়া সফরের আমন্ত্রণও জানিয়েছেন তিনি।

ক্রেমলিন বলেছে, সিরিয়ার আঞ্চলিক অখণ্ডতা নিশ্চিত করতে সম্মত হয়েছেন দুই নেতা। তুরস্ক ও সিরিয়ার সামরিক বাহিনীর মধ্যে সম্ভাব্য যুদ্ধ এড়ানোর বিষয়েও আলোচনা করেছেন তারা।

অথচ ওদিকে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধবিরতির আহ্বান প্রত্যাখ্যান করে লক্ষ্য পূরণ না হওয়া পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন এরদোগান।

যুদ্ধবিরতি চুক্তির জন্য বুধবার তুরস্ক সফরে যাচ্ছেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। আঙ্কারায় প্রেসিডেন্ট এরদোগানের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন তিনি।

সফরে পেন্সের সঙ্গে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এবং নিরাপত্তা উপদেষ্টা রবার্ট ও’ব্রিয়েনেরও থাকার কথা রয়েছে।

Bellow Post-Green View