চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সাড়ে ৩টা পর্যন্ত ‘তালাবদ্ধ’ ছিলেন প্রিজাইডিং অফিসার

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী পৌরসভা নির্বাচন

ভোটগ্রহণ শুরুর পর থেকে বেলা সাড়ে ৩টা পর্যন্ত টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী পৌরসভা নির্বাচনে ৮নং ওয়ার্ড ধনবাড়ী সরকারি ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার ‘তালাবদ্ধ’ অবস্থায় ছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

ওই কেন্দ্রের মোট ভোটার সংখ্যা ৪ হাজার ২৭৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ হাজার ১১৪জন এবং মহিলা ভোটার ২ হাজার ১৫৯জন। ভোটার সংখ্যা বেশি হওয়ার কারণে চার মেয়র প্রার্থীর নজরও ছিল এই কেন্দ্রটির দিকে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

শনিবার সকালে ভোট গ্রহণ শুরু থেকেই উত্তেজনা বিরাজ করছিলো কেন্দ্রটিতে। হামলা, ভাংচুর, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাও ঘটে এখানে।

নৌকা সমর্থিত প্রার্থীর লোকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠে ভোটারদের ফিঙ্গার রেখে বের করে দেয়ার। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী মনিরুজ্জামান বকল (নারিকেল গাছ) এবং বিএনপি প্রার্থী এসএমএ ছোবহান (ধানের শীষ) এমন অভিযোগ করেন।

চ্যানেল আই অনলাইনের প্রতিবেদক জানান, সবচেয়ে আকর্ষণীয় ও আলোচিত বিষয় ছিল ভোটগ্রহণ শুরুর কিছু সময় পর থেকেই প্রিজাইডিং অফিসার সুজন নাথকে কক্ষ ভেতরে রেখে দরজা তালাবদ্ধ রাখা।

বিজ্ঞাপন

তিনি আরও জানান, বেলা সাড়ে ৩টা পর্যন্ত কক্ষটি ভেতর থেকে বন্ধ ছিল।

কক্ষের সামনে দায়িত্বরত একজন আনসার সদস্য বলেন, ‘স্যার বাইরে তালা দিয়ে ভিতরে বসে আছেন।’

পরে তালা খুলে প্রিজাইডিং অফিসার অভিযোগ সম্পর্কে বলেন, ‘ভোটারদের ফিঙ্গার রেখে বের করে দেয়ার অভিযোগ কেউ করেনি।’

এই কথা বলে তিনি আবারও ভেতর থেকে দরজা বন্ধ করে দেন। পরে তার সাথে সাংবাদিকরা আর যোগাযোগ করতে পারেননি।

এ বিষয়ে বিএনপি প্রার্থী এসএমএ ছোবহান বলেন, ‘ধনবাড়ী সরকারি ডিগ্রী কলেজে কেন্দ্রে ভোটারদের ফিঙ্গার রেখে বের করে দিয়ে নৌকা প্রার্থীর সমর্থিতরা নৌকায় ভোট দেয়। প্রিজাইডিং অফিসারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও প্রতিকার পাওয়া যায়নি।’

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা করুনা সিন্ধু চাকলাদার বলেন, ‘ভোট সুষ্ঠুভাবে হয়েছে। আমার কাছে কেউ কোনো অভিযোগ করেননি।’