চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সাহিত্যে নোবেল পেলেন আব্দুলরাজাক গুরনাহ

সাহিত্যে নোবেল পেয়েছেন তানজানিয়ার ঔপন্যাসিক আব্দুলরাজাক গুরনাহ। ঔপনিবেশিকতার প্রভাব ও উপসাগরীয় অঞ্চলে শরণার্থীদের ভাগ্য কলমের আঁচড়ে ফুটিয়ে তোলার বিশেষ স্বীকৃতিস্বরূপ তাকে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।

বৃহস্পতিবার সুইডেনের ‘রয়্যাল সুইডিস অ্যাকাডেমি অব সাইন্সেস’র পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে তার নাম ঘোষণা করা হয়।

তিনি ১০টি উপন্যাসের পাশাপাশি বেশ কিছু ছোট গল্প লিখেছেন। তার সাম্প্রতিক আলোচিত উপন্যাস ‘আফটারলাইভস’। ২০০৫ সালে আব্দুলরাজাক গুরনাহের রচিত ‘ডেজাসন’ উপন্যাসটি বিশেষভাবে আলোচিত হয়। যেখানে ঔপনিবেশিক ও উপসাগরীয় তরুণ-তরুণীর প্রেমের ঘটনা প্রবাহ তুলে ধরা হয়েছে। সেই প্রেম কাহিনীর ঘটনার বৈচিত্র্যতার জন্য লেখক যার নাম দিয়েছিলেন ‘ইম্পেরিয়াল রোমান্স’।

১৯৪৮ সালে জন্মগ্রহণ করা গুরনার বেড়ে ওঠা জঞ্জিবার দ্বীপপুঞ্জে। ১৯৬০ সালে শরণার্থী হিসেবে তিনি ইংল্যান্ডে যান।

বিজ্ঞাপন

গতবছর সাহিত্যে নোবেল পেয়েছিলেন মার্কিন কবি ও প্রাবন্ধিক লুসি গ্লুক।

গত ৪ অক্টোবর তাপমাত্রা ও স্পর্শের রিসেপ্টর আবিষ্কারের জন্য এবার চিকিৎসা বিজ্ঞানে যৌথভাবে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন ডেভিড জুলিয়াস এবং আর্ডেম প্যাটাপৌসিয়ান।

৫ অক্টোবর পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন তিনজন। এরা হলেন: জাপানি আবহাওয়াবিদ স্যুকুরো মানাবে, জার্মান পদার্থবিজ্ঞানী ক্লাউস হাসেলমান এবং ইতালিয়ান পদার্থবিদ জর্জিও পারিসি।

৬ অক্টোবর জৈব-অনুঘটন বিক্রিয়া আবিষ্কারের জন্য রসায়নে যৌথভাবে নোবেল জয় করেন জার্মানীর বিজ্ঞানী বেঞ্জামিন লিস্ট এবং যুক্তরাষ্ট্রের ডেভিড ডব্লিউ. সি ম্যাকমিলান।

৮ অক্টোবর শান্তিতে এবং সর্বশেষ অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার ঘোষণা করা হবে ১১ অক্টোবর।

বিজ্ঞাপন