চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সার্থক জনম তোমার হে শিল্পী সুনিপুণ

৭৬ বছরে পা রাখলেন দেশের তারকা অভিনেতা, নাট্যকার ও নাট্য নির্দেশক আবুল হায়াত…

বাংলাদেশের অভিনয় জগতে অনন্য একটি নাম আবুল হায়াত। ষাটের দশক থেকে নিয়মিত অভিনয় করে যাচ্ছেন তিনি। শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) এই অভিনেতা পা রাখলেন ৭৬ বছরে!

১৯৪৪ সালের ৭ সেপ্টেম্বর মুর্শিদাবাদে জন্ম গ্রহন করেন আবুল হায়াত। অভিনয়ের সকল মাধ্যমে তার বিচরণ। থিয়েটার, টিভি নাটক ও চলচ্চিত্রে সমানভাবে দাপিয়ে বেড়িয়েছেন তিনি। অভিনয়ের পাশাপাশি নাট্যকার ও নাট্যনির্দেশক হিসেবেও খ্যাতি আছে তাঁর।

বিজ্ঞাপন

তুখোড় এই অভিনেতার ৭৫ বছর পূর্তিতে দেশের নানা অঙ্গনের ১০০ জন বিশিষ্ট ব্যক্তির লেখা নিয়ে সম্প্রতি প্রকাশ হয়েছে ‘সার্থক জনম তোমার হে শিল্পী সুনিপুণ’ শীর্ষক একটি গ্রন্থ। জিয়াউল হাসান কিসলুর সম্পাদনায় এটি প্রকাশ করেছে প্রিয় বাংলা প্রকাশন।

বইটিতে যারা আবুল হায়াতকে নিয়ে লিখেছেন তাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছেন সৈয়দ হাসান ইমাম, আতাউর রহমান, আলী যাকের, আসাদুজ্জামান নূর, সুবর্ণা মুস্তাফা, সুলতানা কামাল, আবুল হায়াতের বন্ধু কবি-স্থপতি রবিউল হুসাইন, বিপাশা হায়াত, তৌকীর আহমেদ, শাহেদ শরীফ খান, অপূর্ব, সজল, তিশাসহ অনেকে।

কিংবদন্তি নির্মাতা সুভাষ দত্ত পরিচালিত ‘অরুণোদয়ের অগ্নিস্বাক্ষী’-তে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে প্রথমবার চলচ্চিত্রে নাম লেখান আবুল হায়াত। এরপর বেশকিছু প্রশংসিত চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। এরমধ্যে কেয়ামত থেকে কেয়ামত, আগুনের পরশমণি, জয়যাত্রা এবং অজ্ঞাতনামা উল্লেখযোগ্য।

২০০৮ সালে তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ‘দারুচিনি দ্বীপ’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন। ২০১৫ সালে তিনি দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মাননা ‘একুশে পদক’-এ ভূষিত হন।

Bellow Post-Green View