চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সারাদেশে গণভ্যাকসিন প্রদান কর্মসূচি শুরু

শনিবার থেকে শুরু হওয়া সারাদেশের ৪ হাজার ৬০০ ইউনিয়নে গণভ্যাকসিন প্রদান কমসূচিতে উৎসবমুখর পরিবেশে চলছে ভ্যাকসিন গ্রহণ। এই ক্যাম্পেইনে ২৫ বছরের বেশি বয়সী নারী, শারীরিক প্রতিবন্ধী এবং দুর্গম ও প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। সকাল ৯টা থেকে শুরু হওয়া কার্যক্রম চলবে বিকেল ৩টা পর্যন্ত। 

ঢাকার ২ সিটিসহ সারাদেশের ১২টি সিটি কপোরেশনের প্রায় ৪৩৩টি ওয়ার্ড এবং ১ হাজার ৫৪টি পৌরসভা মিলিয়ে প্রায় ১৫ হাজার কেন্দ্রে চলা এই বিশেষ গণভ্যাকসিন প্রদান কর্মসূচি আগামি বৃহস্পতিবার পর্যন্ত টানা ৬ দিন  চলবে।

বরিশালের ৩০টি ওয়ার্ডসহ মোট ৩৬ কেন্দ্রে টিকা কার্যক্রম উদ্বোধন করেন উপজেলা চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু। জেলার ৮৫ ইউনিয়নে এই কার্যক্রম চলবে।

সিলেটে শতাধিক কেন্দ্রে টিকা কার্যক্রম শুরু হয়। ভার্চুয়ালী কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.একে আবদুল মোমেন।

রংপুরে প্রথম দিনে ২২ হাজার ২শ’ জন এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে সিনোফার্মার ৪৩ হাজার ২শ’ জনকে করোনাভ্যাকসিন দেয়া হচ্ছে।

চট্টগ্রামের ৪১টি ওয়ার্ডের ১২৩টি বুথে এই কার্যক্রম চলছে। প্রথম দিনে টিকা দেয়ার লক্ষ্যমাত্রা ৫০ হাজার ডোজ।

বিজ্ঞাপন

গণটিকা কার্যক্রমে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের ৩৩ ওয়ার্ডের ২৫ বছর বেশি বয়সী নারী-পুরুষ লাইনে দাঁড়িয়ে টিকা নিয়েছেন।

যশোরে ৫৬ হাজার ৪শ’ জনকে টিকা দেওয়া হবে।

কুষ্টিয়া জেলার ৬৪ ইউনিয়ন ও ৫টি পৌরসভার ৯৭ টি কেন্দ্রে করোনা ভ্যাকসিন কার্যক্রমে মোট ৬২ হাজার ৪শ’ জনকে টিকা দেওয়া হবে।

চাঁদপুর জেলায় একদিনে টিকা পাবেন ৬১ হাজার ২০০জন।

পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটির ৩৩ হাজার মানুষকে প্রথম ডোজ টিকা দেওয়া হচ্ছে।

সুরক্ষা অ্যাপসের মাধ্যমে যারা আগে নিবন্ধন করেছেন এবং নতুন করে নিবন্ধন করছেন তাদেরও টিকা দেয়া চলছে।

প্রথম দিন সারাদেশে বিশেষ গণভ্যাকসিন প্রদান কর্মসূচিতে প্রায় ৩০ লাখ মানুষ করোনার ভ্যাকসিন পাবেন বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিজ্ঞাপন