চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সামনে এগিয়ে যাই

বাইশ বছরে এসে আমাদের বলতে হচ্ছে- সামনে এগিয়ে যাই। অথচ বয়স যখন একুশ পার হলো তখন ভাবার কথা ছিল পেছনে ফিরে তাকানোর আর অবকাশ নেই। অসাধারণ গতি নিয়ে ছুট দেয়ার কথা ছিল। রঙিন পৃথিবীটা আরো বর্ণিল করে তোলার কথা ছিল।

এবার হঠাৎ করেই পৃথিবী পাল্টে ফেলল তার চেহারা। মানুষের হাতে অনেক কিছুই আর রইল না। গতি নেমে গেল। করোনার আক্রমণে স্তব্ধ হয়ে গেল সব। সমস্ত কিছু অচল অচল ভাব। এক অন্যরকম পৃথিবী। করোনার সঙ্গে আমাদের যুদ্ধ। এমন সব জিনিস থেমে গেল বা আমরা থামাতে বাধ্য হলাম যা কেবল জুল ভার্নের সায়েন্স ফিকশন গল্প-উপন্যাসে সম্ভব। ভবিষ্যতে এই সময়কাল নিয়ে সাহিত্য সৃষ্টি হবে, চলচ্চিত্র হবে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

যা দেখে বা পড়ে মনে হবে এই রকম অবিশ্বাস্য সময়ও মানুষ পার করেছে। এই নিশ্চল স্থবির সময়েও যেটি চালু আছে সেটি হচ্ছে স্বপ্ন। যেটি এখনও গতিষ্মান সেটি হচ্ছে বিশ্বাসের শক্তি।

বিজ্ঞাপন

মানুষ সেই প্রাণী যে জানে জীবন মানে অবশ্যই মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাওয়া। একই সঙ্গে বেঁচে থাকার আনন্দ উপভোগ করাটাও সবচেয়ে বড় অর্জনের বিষয়। এই আনন্দের জন্য, বিশুদ্ধ আনন্দের জন্য যুদ্ধ করছে চ্যানেল আই। যত প্রতিকূলতাই আসুক, সময় যত কুয়াশাচ্ছন্নই হোক সদা সর্বদা আপনাদের সাথে নিয়ে বলব, সামনে এগিয়ে যাই।

আমাদের এই বিশেষ ক্রোড়পত্রের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পত্রিকা ও মিডিয়ার সঙ্গে তার ও তার পরিবারের সম্পর্ক উল্লেখ করে একটি দীর্ঘ লেখা দিয়েছেন। তার জন্য আমাদের নিরন্তর শুভ ও কল্যাণ কামনা এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা।