চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সাবারিমালা মন্দিরে উত্তেজনা বাড়ছেই

ভারতের কেরালা রাজ্যে সাবারিমালা মন্দিরকে কেন্দ্র করে ক্রমশ বাড়ছে উত্তেজনা। রোববার রাতেও এই মন্দিরকে কেন্দ্র করে রাজ্যটির একাধিক জেলায় ছড়িয়ে পড়েছিলো উত্তেজনা, হয়েছে সংঘর্ষও। বাদ যায়নি মুখ্যমন্ত্রী পিনরাই বিজয়নের বাসভবন।

রোববার রাত ১১টায় সেদিনের মত মন্দির বন্ধ হওয়ার পরই এই বিক্ষোভের ঘটনা ঘটে। বিক্ষোভকারীদের মধ্যে থেকে অন্তত ১০০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। কারণ তারা পুলিশের বাধা উপেক্ষা করে এগোচ্ছিলো এবং পুলিশ ফোর্স তুলে নেওয়ার দাবি জানাচ্ছিলো।

বিক্ষোভকারীরা রাতব্যাপী মন্দির প্রাঙ্গণে থাকার উপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ারও দাবি জানিয়েছিলো।

রোববার রাত থেকে মন্দির চত্বরে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এরই মাঝে প্রতিবাদ দিবসের ডাক দিয়েছে বিজেপি। সাবারিমালা মন্দিরে যাওয়ার পথে বিজেপি নেতাকে বাধা দেয় পুলিশ। পরে গ্রেফতার হন তিনি। তারই প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বিজেপি কর্মীরা। রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় শুরু হয় পথ অবরোধ। 

কেরালায় ১২ ঘণ্টার ধর্মঘটও পালিত হয়। গোটা এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন। অভিজ্ঞ অফিসারদের সামনে রেখে নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে চাইছে পিনরাই প্রশাসন।

শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে কেরালার বিখ্যাত সাবারিমালা মন্দিরে ১০ থেকে ৫০ বছর বয়সী নারীদের প্রবেশ একেবারেই নিষিদ্ধ ছিল। স্থানীয়দের বিশ্বাস, ওই মন্দিরের উপাস্য দেবী আয়াপ্পা একজন চিরকুমারী এবং ঋতুস্রাব হওয়ার বয়স হয়েছে এমন সব নারী ‘অপবিত্র’।

এই বিশ্বাসের বিরুদ্ধে গিয়ে গত ২৮ সেপ্টেম্বর ভারতের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র রায় দেন। তাতে ৫০ বছর বয়স পর্যন্ত নারী উপাসকদের মন্দিরে প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা বাতিল করা হয়। এরপরই শুরু হয় উত্তেজনা।