চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সাগর-রুনি হত্যা: ৯ বছর পরও বিচার নিয়ে সংশয়

সাংবাদিক দম্পতি সাগর সারোয়ার ও মেহেরুন রুনি হত্যার ৯ বছর আজ। ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি রাতে ঢাকার পশ্চিম রাজাবাজারে মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সারওয়ার ও এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মেহেরুন রুনি নিজ বাসায় নির্মমভাবে খুন হন।

পরের দিন ভোরে তাদের ক্ষতবিক্ষত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় রুনির ভাই বাদী হয়ে আদালতে একটি মামলা করেন। মামলার পর তানভীর রহমানসহ মোট আটজনকে আটক করা হয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

কিন্তু আজ পর্যন্তও তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে পারেনি মামলাটির তদন্তের দায়িত্বে থাকা র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এরই মধ্যে প্রতিবেদন জমার দিতে ৭৮ বার সময় নিয়েছে সংশ্লিষ্টরা।

বিজ্ঞাপন

এমন পরিস্থিতিতে তাই আদৌ বিচার পাবেন কিনা তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করছেন এই সাংবাদিক দম্পতির পরিবার।

চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকাণ্ডের পর প্রথমে মামলাটির তদন্তভার গ্রহণ করেন শেরেবাংলা নগর থানা। এরপর ২০১২ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি তদন্তের দায়িত্ব নেয় ডিবি উত্তর। উচ্চ আদালতের নির্দেশে ওই বছরের ১৮ এপ্রিল তদন্তভার র‌্যাবকে দেওয়া হয়। বর্তমানে মামলাটি তদন্ত করছেন র‌্যাবের অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার রায়হান উদ্দিন খান।

সবশেষ গত ৩ ফেব্রুয়ারি তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। কিন্তু তদন্ত সংস্থা প্রতিবেদন দাখিল করতে না পারায় পরবর্তী তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য ১১ মার্চ দিন ধার্য করেন আদালত।