চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সাকিবের সঙ্গে মাশরাফীকেও চায় রংপুর

বিপিএলের সপ্তম আসর মাঠে গড়াবে আগামী ৬ ডিসেম্বর। তার আগে সব ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করছে আয়োজক কমিটি। বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের ভাবনা জানতে ও নিজেদের মতামত জানাতে মঙ্গলবার বিসিবি কার্যালয়ে এসেছিলেন রংপুর রাইডার্সের প্রতিনিধিরা। পরে দলটির প্রধান নির্বাহী ইসতিয়াক সাদেক সাংবাদিকদের জানান তাদের মূল দাবি ছিল দুটি।

যার একটি, প্লেয়ার্স ড্রাফটের আগেই যেন অন্তত একজন স্থানীয় খেলোয়াড়কে সরাসরি দলে ভেড়ানো যায়। দ্বিতীয়টি, খেলোয়াড় রি-টেনশন পদ্ধতি অর্থাৎ গত আসর থেকে যেন কিছু খেলোয়াড় নিজ নিজ দলে ধরে রাখা যায়। দুটি দাবিই যদি বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল মেনে নেয় তাহলে বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টুয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান এবং ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজাকে দেখা যেতে পারে রংপুরের ডেরায়।

বিজ্ঞাপন

বিপিএলের গত দুই আসরে রংপুরকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মাশরাফী। রিটেইন প্রক্রিয়ায় আগামী আসরেও তাকে ধরে রাখতে চায় রংপুর।

বিজ্ঞাপন

আইকন ক্যাটাগরিতে ঢাকা ডায়নামাইটস ছেড়ে এবার রংপুরের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন সাকিব। যদিও আয়োজকরা বলছেন এই চুক্তির কোনো ভিত্তি নেই। কেননা সপ্তম আসর থেকে শুরু হচ্ছে বিপিএলের নতুন চক্র। যেখানে নিয়ম-কানুনে আসবে অনেক পরিবর্তন।

নতুন কাঠামো তৈরির আগেই চুক্তি সেরে ফেলায় কিছুটা বিপাকেই পড়েছে বিসিবির এই কমিটি। প্রাথমকিভাবে তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবার রিটেইন প্রক্রিয়া থাকবে না। সব হবে নতুন করে। শেষ পর্যন্ত রংপুরের দুটি দাবিই যদি মেনে নেয়া হয় তাহলেই কেবল সম্ভব মাশরাফী ও সাকিবকে তাদের দলে খেলাতে।

আয়োজক কমিটির সঙ্গে আলোচনা ও বিপিএলের পরের আসর নিয়ে নিজেদের পরিকল্পনা নিয়ে ইসতিয়াক সাদেক বলেন, ‘আমাদের পরামর্শ ছিল যেহেতু একটা টিম ২ বছর ধরে একভাবে খেলে আসছে, পরবর্তী চার বছর খেলার জন্য টিমের একটা কোড দরকার। টিমের কিছু খেলোয়াড় রিটেইন করার ব্যাপার আছে। সে রিটেনশন চেয়েছি আমরা। বোর্ড বলছে আইকন খেলোয়াড় বলে কিছু নাকি থাকবে না। যে কারণে একজন স্থানীয় খেলোয়াড়কে যেন সরাসরি নেয়া যায় সেই ডাইরেক্ট সাইনিং আমরা চেয়েছি। বোর্ড বলছে বিদেশি ডাইরেক্ট সাইনিং দুই অথবা তিনজন করবে। আমরা বললাম, যেহেতু ফরেন করবে লোকাল ডাইরেক্ট সাইনিং কেন নয়।’

রংপুর রাইডার্সের এই প্রতিনিধি জানান, স্থানীয় একজন খেলোয়াড়কে যদি ড্রাফটের বাইরে রাখা হয় তাহলে তারা সাকিবকেই দলে নেবেন। আর রিটেইন প্রক্রিয়া চালু থাকলে রেখে দেয়া হবে মাশরাফীকে।

Bellow Post-Green View