চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সাংবাদিক মাহমুদুল হাকিম অপু মারা গেছেন

করোনাভাইরাস ছিল কিনা জানতে নমুনা সংগ্রহ

দৈনিক সময়ের আলো পত্রিকার সিনিয়র সাব এডিটর মাহমুদুল হাকিম অপু মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৫২ বছর। মাহমুদুল হাকিম অপু ঢাকা বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের গণ‌যোগা‌যোগ ও সাংবা‌দিকতা বিভা‌গের প্রাক্তন ছাত্র। 

মঙ্গলবার ভোরে বনশ্রীতে নিজ বাসায় ঘুমের মধ্যেই তিনি মারা যান। তার মৃত্যুর কারণ এখনও জানা যায়নি।

বিজ্ঞাপন

তবে করোনাভাইরাস আক্রান্ত ছিলেন কিনা তা পরীক্ষার জন্য তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষার ফল জানানোর পরই জানা যাবে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন কিনা। তিনি বেশ কিছুদিন ধরে জ্বর, শ্বাসকষ্ট নিয়ে বাসায় অবস্থান করছিলেন বলে জানিয়েছেন তার সহকর্মীরা।

মাহমুদুল হাকিম অপুর পারিবারিক সূত্র জানায়, গত এক সপ্তাহ ধরে জ্বর ও কাঁশির উপসর্গ নিয়ে বাসায় চিকিৎসাধীন ছিলেন। ২/৩ দিন আগে তিনি সুস্থ হয়ে যান।

বিজ্ঞাপন

সাংবাদিক অপুর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করছেন তার বিশ্ববিদ্যালয়ের সহপাঠী, বন্ধুরা। গভীর শোক জানিয়েছে আমিন মোহাম্মদ গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এম এনামুল হক, সময়ের আলোর প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ ও ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কমলেশ রায়।

বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল ডিবিসি’র এডিটর জায়েদুল আহসান পিন্টু তার ফেসবুক পোস্টে বলেন: ‘সাংবাদিকতা বিভাগে আমাদের সহপাঠি বন্ধু অপু করোনা উপসর্গ নিয়ে চলে গেল।’

চ্যানেল আইয়ের চিফ নিউজ এডিটর (সিএনই) ও চ্যানেল আই অনলাইনের সম্পাদক জাহিদ নেওয়াজ খান ফেসবুকে লিখেছেন: ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে জার্নালিজম ডিপার্টমেন্টে আমাদের এক বছরের সিনিয়র অপু ভাই। একটু নিভৃতচারী মানুষ ছিলেন। পিন্টুভাইসহ তার ক্লাসমেটরা জানাচ্ছেন, করোনাভাইরাস উপসর্গ ছিল তার। অপু ভাই যেখানে কাজ করতেন, সেই সময়ের আলো পত্রিকার চিফ রিপোর্টার হুমায়ুন কবীর খোকন করোনায় মারা গেছেন। তার স্ত্রী-পুত্রও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে। অপু ভাই এবং খোকনের আত্মার চিরশান্তি কামনা করছি।’

এর আগে গত ২৮ এপ্রিল পত্রিকাটির সিটি এডিটর ও প্রধান প্রতিবেদক হুমায়ুন কবীর খোকন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। রাজধানীর উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এরপর তার স্ত্রী ও ছেলের শরীরে করোনা ধরা পড়ে। তার স্ত্রী বর্তমানে আইসিইউতে।