চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সাংবাদিক এম আনোয়ারুল হকের মৃত্যুতে ডিআরইউ’র শোক

ডিআরইউ’র সাবেক সভাপতি এম আনোয়ারুল হকের মৃত্যুতে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যনির্বাহী কমিটির পক্ষ থেকে সভাপতি ইলিয়াস হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ খান এক বিবৃতিতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তার মৃত্যুতে দুদিনের শোক ঘোষণা করেছে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি।

ডিআরইউ নেতৃবৃন্দ মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার সন্ধ্যায় ডিআরইউ দপ্তর সম্পাদক মোঃ জেহাদ হোসেন চৌধুরীর পাঠানো এক বিবৃতি এ তথ্য জানানো হয়।

বিবৃতি বলা হয়, আনোয়ারুল হকের মৃত্যুতে ডিআরইউ’র পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে এবং সদস্যরা কালো ব্যাজ ধারণ করবেন। ডিআরইউ বাগানে শোক বই রাখা হবে শনিবার ২৩ মার্চ ও রোববার ২৪ মার্চ।

ডিআরইউ দুই দুইবারের সাবেক সভাপতি ও সিনিয়র সাংবাদিক এম আনোয়ারুল হক শুক্রবার ভোর সাড়ে ৫টায় রাজধানীর ধানমন্ডির নিজ বাসভবনে ইন্তেকাল করেন। বেশ কিছু দিন যাবত মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণসহ নানা সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

সাংবাদিকতার জীবনে তিনি ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টারের ডিপ্লোমেটিক করেসপন্ডেন্ট, সিটি এডিটর ও চীফ রিপোর্টার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এছাড়াও তিনি মর্নিং সান, দ্য পিপলসহ বিভিন্ন ইংরেজি দৈনিকে কাজ করেন। কর্মজীবনে পরে তিনি বাংলাদেশের দিল্লী হাই কমিশনের প্রেস মিনিস্টারের দায়িত্বও পালন করেন।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬২ বছর। তিনি স্ত্রী, ২ পুত্র, ১ কন্যা এবং আত্মীয়-স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

আজ বিকালে ধানমন্ডিতে মরহুমের প্রথম এবং পরে ডিআরইউতে দ্বিতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।নামাজে জানাজা শেষে মরহুমকে রাজধানীর আজিমপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

এসময় ডিআরইউ’র বর্তমান নেতৃবৃন্দ ও সাবেক সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন বাদশা, সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মোতাহের হোসেন মাসুম, রাজু আহমেদ, মুরসালিন নোমানীসহ সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ ও সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও মরহুমের সহকর্মীসহ নিউ এইজের সম্পাদক নূরুল কবির এবং বিএফইউজে ও ডিইউজের নেতৃবৃন্দসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

আগামী ২৬ মার্চ বাদ আসর মরহুমের ধানমন্ডির নিজ বাসভবনে চেহলাম অনুষ্ঠিত হবে। মরহুমের পরিবারের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

Bellow Post-Green View