চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘সব নারীর জন্য স্যানিটারি প্যাড চাই’ 

নারীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় স্যানিটারি প্যাড ও অন্যান্য বিষয়ে “সব নারীর জন্য স্যানিটারি প্যাড চাই” শীর্ষক মুক্ত আলোচনা সম্পন্ন হয়েছে।

নারীর স্বাস্থ্য সুরক্ষা ফোরাম (নাসাসু) এর আয়োজনে শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের মওলানা আকরাম খাঁ মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠান হয়।

বিজ্ঞাপন

আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক (অর্থনীতি বিভাগ) বিদিশা হক, আদিবাসী নারী একটিভিস্ট ইলিরা দেওয়ান, চা শ্রমিক অধিকারকর্মী খাইরুন আক্তার, অনন্যা পত্রিকার সহকারী সম্পাদক লাইলী বেগম, স্বাস্থ্য অধিকার কর্মী ডঃ লেলিন চৌধুরী, উন্নয়নকর্মী ও মানবাধিকার কর্মী ফেরদৌস আরা রুমী।

কর্মসূচি প্রসঙ্গে ইলিরা দেওয়ান বলেন, যেসব স্বাস্থ্যকর্মী জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি নিয়ে কাজ করে তারাই গ্রামে গ্রামে নারীদের মধ্যে স্যানিটারি প্যাডের সচেতনতা বৃদ্ধি করতে পারে৷

বিজ্ঞাপন

অধ্যাপক বিদিশা হক বলেন, স্বাস্থ্য খাত এবং সামাজিক সুরক্ষা খাত থেকে মাসিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে বাজেট বরাদ্দ রাখতে হবে।

স্বাস্থ্য অধিকার কর্মী ডাঃ লেলিন চৌধুরী জানান, আধুনিক প্রচলিত প্যাড সমূহে যেসব জেল, প্লাস্টিক ব্যবহার করা হয় তাতে ক্যান্সারের উপাদান রয়েছে। তাই সরকারিভাবে অর্গানিক কটন প্যাড তৈরি করতে হবে এবং প্যাড উৎপাদনকারী কোম্পানিকে এই ধরণের প্যাড উৎপাদন করতে আইন প্রণয়ন এবং প্রয়োগ করতে হবে।

চা শ্রমিক অধিকারকর্মী খাইরুন জানান, চা বাগানে কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে স্যানিটারি প্যাড বিতরণ করা এবং এই বিষয়ক সচেতনতা তৈরি করতে হবে। এর পাশাপাশি রেশন কার্ডে চাল, ডাল, আটা এরকম নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের পাশাপাশি স্যানিটারি প্যাড বিতরণ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে ফেরদৌস আরা রুমী বলেন, সরকারি সহযোগিতায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে জেন্ডার সেনসেটাইজ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে এই বিষয়ে ট্যাবু ভেঙ্গে ফেলতে হবে এবং কমিউনিটিকে সঙ্গে রেখে রাষ্ট্রীয়ভাবে প্যাড উৎপাদন এ সচেষ্ট হতে হবে।

এই আলোচনা থেকে উঠে আসা দাবী নিয়ে নাসাসু তাদের পরবর্তী কর্মসূচি পরিচালনা করবে জানানো হয়েছে।

Bellow Post-Green View