চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সবাইকে বিনামূল্যে টিকা দেয়া হবে: নরেন্দ্র মোদি

আগামী ২১ জুন থেকে ১৮ উর্ধ্ব সব নাগরিককে বিনামূল্যে করোনা টিকা দেবে বলে জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

সোমবার জাতির উদ্দেশে এক ভাষণে এমনটা জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

নরেন্দ্র মোদি বলেন, যখন বিশ্বে করোনা ছড়িয়ে পড়েছিল, তখন সারা বিশ্ব আতঙ্কে ছিলো যে এটা কীভাবে সামাল দেওয়া সম্ভব হবে। কিন্তু পরিশ্রম করলে, মনোভাব স্বচ্ছ থাকলে সব কাজ করা যায়। এক বছরের মধ্যে আমাদের দেশে দুটি টিকা তৈরি করেছেন বিজ্ঞানীরা।

তিনি বলেন, বিভিন্ন রাজ্যের থেকে বিভিন্ন রকমের দাবি করা হচ্ছিল টিকা কর্মসূচি নিয়ে। কেন লকডাউনের ক্ষমতা রাজ্যের হাতে দেয়া হচ্ছে না, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছিল। তাই রাজ্যগুলোর দাবির ভিত্তিতেই কেন্দ্র ধীরে ধীরে টিকা দেয়ার দায়িত্ব ছেড়ে দেয় তাদের হাতে।

বিজ্ঞাপন

মোদি আরও বলেন, এপ্রিল পর্যন্ত কেন্দ্রের মাধ্যমে টিকা কর্মসূচি চলছিল। ভালোভাবেই চলছিল। দেশের মানুষ অপেক্ষা করছিল। তারপর রাজ্যের পক্ষ থেকে বিভিন্ন দাবি করা হয়। রাজ্যের হাতে টিকা কর্মসূচির ক্ষমতা দেয়া হচ্ছে না কেন-প্রশ্ন তোলা হয়। তারই প্রেক্ষিতে চিন্তাভাবনা করা হয়েছে। আমরা সব কিছু ভেবে ২৫ শতাংশ কাজ রাজ্যকে দেয়ার কথা বলেছি।

প্রতিটি ডোজের যা নির্ধারিত দাম থাকবে, তাতে সর্বাধিক ১৫০ টাকা সার্ভিস চার্জ বসানো যাবে বলে জানান মোদি।

তিনি বলেন, টিকা প্রস্তুতকারকদের থেকে ৭৫ শতাংশ টিকা কিনবে কেন্দ্র। বাকি ২৫ শতাংশ কিনতে পারবে বেসরকারি সংস্থাগুলো।  আর রাজ্যগুলোকে বিনামূল্যে টিকা দেয়া হবে। ১৮ বছর বয়সী সবাই বিনামূল্যে টিকা পাবেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের পর এক প্রতিক্রিয়ায় কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী টুইট করে বলেছেন, টিকা বিনা পয়সায় দিলে বেসরকারি হাসপাতালগুলো কেন টাকা নিচ্ছে?