চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সঞ্জয় দত্তের সঙ্গে বলিউডে পা রাখছেন ধোনি?

বিশ্বকাপের পর থেকে তার ক্রিকেট ভবিষ্যৎ নিয়ে অনিশ্চয়তা। অবসরে যাবেন, নাকি বিশ্রাম নিয়ে ফিরবেন মাঠে? চারদিকে যখন এসব প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে, তখনই আবার খবর, বলিউডে পা রাখতে যাচ্ছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি।

একা বা যেনতেন কারো সঙ্গে নয়। খবর, ভারতীয় সাবেক অধিনায়কের বলিউড অভিষেক হতে যাচ্ছে সঞ্জয় দত্তের সঙ্গে।

বিজ্ঞাপন

সিনেমাটি হবে ‘ডগহাউস’ শিরোনামে এবং মূল চরিত্রে অনেক বড় কোনো নাম থাকবে। বলা হচ্ছে, সঞ্জয় দত্তকে এরইমধ্যে ঠিক করা হয়ে গেছে এবং চলচ্চিত্র নির্মাতারা এখন অন্য চরিত্রগুলো চূড়ান্ত করতে ব্যস্ত।

কোইমইয়ের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিনেমাটির নাম ‘ডগহাউস’ এবং পরিচালনা করছেন সমীর করণিক।

বিজ্ঞাপন

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, সঞ্জয় দত্ত অন্যতম প্রধান চরিত্র হিসাবে চূড়ান্ত হয়েছেন। এছাড়া ইমরান হাশমি এবং সুনীল শেঠির সঙ্গেও যোগাযোগ করা হয়েছে। সিনেমায় ধোনিকে একটি ক্যামিও চরিত্রে দেখা যাবে।

বিশ্বকাপের পর থেকে মহেন্দ্র সিং ধোনিকে ঘিরে বিভিন্ন ধরণের জল্পনা চলছে। অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার কখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিজের ব্যাট-প্যাড ও বুট জোড়া তুলে রাখবেন সে সম্পর্কেই আলোচনা। মেগা ইভেন্টের পর ৩৮ বছরের ধোনি ক্রিকেট থেকে বিরতি নিয়ে কাশ্মীরে ১৫ দিন ধরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সঙ্গে ট্রেনিং করেছেন।

গত মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে এবং টি-টুয়েন্টি সিরিজ মিস করেছেন এবং সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে ঘরের মাঠের তিন ম্যাচের টি-টুয়েন্টি সিরিজেও ছিলেন না। নভেম্বরে বাংলাদেশের বিপক্ষেও তার দলে থাকার সম্ভাবনা নেই বলেই জানিয়েছে ভারতীয় মিডিয়া।

এদিকে, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের খবরে বলা হয়েছে, চোটই ভোগাচ্ছে এমএস ধোনিকে। ঠিক এ কারণেই তাকে এখন আর দেশের জার্সিতে দেখা যাচ্ছে না। তিনি ক্রমেই দীর্ঘ করে যাচ্ছেন তার বিশ্রাম। দীর্ঘদিনের পিঠের চোট নিয়েই ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপ খেলতে গিয়েছিলেন ধোনি। এমনকী বিশ্বকাপের সময়ও তার কব্জিতে চোট লাগে। বিসিসিআই’র সূত্রে পত্রিকাটি জানাচ্ছে, নভেম্বরের পর পুরো ফিট হয়ে মাঠ ফিরতে পারেন ধোনি।

অন্যদিকে, মাঠের বাইরে থাকলেও নানা খবরের অংশ হয়ে চলেছেন ধোনি। বিশ্বব্যাপী শচীন টেন্ডুলকার বা বিরাট কোহলির চেয়ে ধোনিকেই বেশি শ্রদ্ধা করেন মানুষ। বিশ্বের সবচেয়ে শ্রদ্ধেয় পুরুষ ও নারী বেছে নিতে বিশ্বব্যাপী ৪১টি দেশের মধ্যে ৪২ হাজার মানুষকে নিয়ে একটি সমীক্ষা করা হয়েছে। ইউগভ বলে এক সংস্থা সমীক্ষাটি চালায়। রিপোর্টে উঠে এসেছে শ্রদ্ধা প্রদর্শনের ক্ষেত্রে শচীন-কোহলির চেয়ে ধোনিকে এগিয়ে রেখেছেন ফ্যানরা। ভারত থেকে ধোনির আগে এগিয়ে রয়েছেন শুধু সেদেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

Bellow Post-Green View