চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সঙ্কটময় বছরকে পেছনে ফেলে নতুনের প্রত্যাশা

২০২০ সাল ছিল মহামারি করোনাভাইরাসে সঙ্কটময় চ্যালেঞ্জের এক বছর। নতুন বছর ২০২১ সালের প্রথম দিন দেশে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাবের ৩০০তম দিন, এই সময়ের মধ্যে দেশে মৃত্যুবরণ করেছে সাত হাজার ৫৫৯ জনের বেশি মানুষ। সামাজিক-অর্থনৈতিক নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে দেশের মানুষকে সেবা দিতে সামনে থেকে চিকিৎসক, পুলিশ-সেনা, সাংবাদিকসহ অন্যান্য সম্মুখযোদ্ধারা এক ঐতিহাসিক সময় পার করেছেন।

২০২০ সাল ছিল করোনা জর্জরিত নানা প্রেক্ষাপটে বেশ ঘটনাবহুল ও বহু বিশিষ্ট মানুষ হারানোর বছর। ছিল যুবাদের বিশ্বকাপ জয় থেকে শুরু করে পদ্মাসেতুর কাঠামোগত অগ্রগতির সুখবরও। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনন্য নেতৃত্বে স্বাস্থ্যখাতের অব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণে এনে করোনা মোকাবিলা করার পাশাপাশি দেশের অর্থনীতির হাল ধরে রাখার বিষয়টি ছিল উল্লেখ করার মতো। যার স্বীকৃতি মিলেছে যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গের দৃষ্টিতে সবচেয়ে কার্যকরভাবে করোনাভাইরাস সামাল দেয়া দেশগুলোর তালিকায় বাংলাদেশের ২০তম অবস্থানে থাকার মাধ্যমে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

প্রণোদনা, সাহায্য-সহযোগিতার মাধ্যমে সাম্প্রতিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করা গেলেও ভবিষ্যতে পরিবর্তিত বিশ্বের প্রভাব এসে পড়বে স্বাভাবিকভাবেই। গার্মেন্টস শিল্প দেশের অর্থনীতির একটি বড় স্তম্ভ। এর পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ দেশের উৎপাদন ও আমদানি নির্ভর কৃষিখাত। বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারণে গার্মেন্টসের অর্ডার কমবেশি হওয়া এবং কৃষিখাতের চাহিদার ভারসাম্যের কারণে তৈরি হতে পারে সঙ্কট। দেশের মানুষের মৌলিক চাহিদার সুষ্ঠু যোগানের মাধ্যমে স্থিতিশীলতা বজায় রাখা সামনের দিনগুলির চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠবে। এসব বিষয়ে অতিরিক্ত নজর দেয়া প্রয়োজন বলে আমরা মনে করি।

সঙ্কটময় পরিস্থিতিতে একটি দেশের সরকারের উপরে সবচেয়ে বেশি চাপ এসে পড়ে। তবে এসব পরিস্থিতিতে সরকারের পাশাপাশি প্রতিটি মানুষেরও কিছু মানবিক দায়িত্ব রয়েছে, যে যার অবস্থানে থেকে ও সাধ্যমতো এক অন্যের পাশে এসে দাঁড়ালে সামাজিক ও জাতীয় প্রেক্ষাপটে যেকোন সমস্যা মোকাবিলা সহজ হয়। করোনার মধ্যে কিছু মানুষের লোভ-অনৈতিকতার পাশাপাশি বহু মানুষের মানবিক দিক ফুটে উঠেছে। নেতিবাচক দিকগুলো মানুষ যেমন খেয়াল করে ঘৃণা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে, তেমনি মানবিক পদক্ষেপগুলোও অনুসরণ ও সাধুবাদ জানিয়েছে।

আমাদের আশাবাদ, নতুন বছরে এই ধারা অব্যাহত থাকবে, দিন যতো যাবে ভ্যাকসিনসহ প্রাকৃতিক নিয়ে করোনা মুক্ত হবে পুরো বিশ্ব। নতুন বছর সবার জন্য মঙ্গল বয়ে আনুক, এই আমাদের প্রত্যাশা।