চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সংবাদবোধ বিকাশে এমআরডিআই’র উদ্যোগ

শিশুদের জন্য এবং শিশু সংক্রান্ত প্রতিবেদনে নীতি নৈতিকতা মেনে সংবাদ প্রচার বা প্রকাশে কিশোর-তরুণ পাঠক-শ্রোতারা যেনো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে এই উদ্দেশ্যে ‘এক্সপ্লোরিং ইয়ং মাইন্ড: নিউজ লিটারেসি এন্ড এথিক্স ইন চাইল্ড রিপোর্টিং’ নামে একটি প্রকল্পের কাজ শুরু হচ্ছে।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশন এবং ইউনিসেফ বাংলাদেশের সহায়তায় ওই প্রকল্পটির অন্যতম একটি উদ্দেশ্য হচ্ছে কিশোর/তরুণ পাঠকদের সংবাদ সম্পর্কে নিজেদের বোধগম্যতা বাড়ানো বা সংবাদ সম্পর্কে সচেতন করা। বাংলাদেশ ডিবেট ফেডারেশন (বিডিএফ) এমআরডিআই’এর এই উদ্যোগের বাস্তবায়ন সহযোগী।

বিজ্ঞাপন

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান বলেন, কিশোর বা তরুণরাই হচ্ছে ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ গড়ার কর্ণধার। এই তারাই বর্তমান সময়ে পাঠকদের বড় একটা অংশ। তাই সংবাদ সম্পর্কে তাদের জ্ঞান বাড়ানো এবং তাদের মধ্যে একটি ইতিবাচক পরিবর্তন আনয়ন করতে পারলেই সমাজে এর টেকসই প্রভাব বিরাজ করবে।

পাঠকদের মধ্যে এবং মিডিয়াতে শিশুদের অধিকার রক্ষায় ইতিবাচক পরিবেশ সৃষ্টিতে সহায়ক এমন একটি উদ্যোগের অংশ হতে পেরে আনন্দ প্রকাশ করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউনিসেফ প্রতিনিধি এডওয়ার্ড বেগবেদার।

বিজ্ঞাপন

এমআরডিআইয়ের নির্বাহী পরিচালক হাসিবুর রহমান বলেন,  কিশোর/তরুণদের  মধ্যে বিতর্কের বিষয় হিসেবে ‘নীতি-নৈতিকতা মেনে শিশু সংক্রান্ত প্রতিবেদন সম্পর্কে তাদের নিজেদের সংবাদবোধ’ সম্পর্কে আলোচনা করা হবে যাতে তারা শিক্ষিত এবং সচেতন পাঠক হিসেবে যুক্তিতর্কের মাধ্যমে সংবাদের ভাল মন্দ দিক বুঝতে পারেন এবং শিশু সংক্রান্ত প্রতিবেদনে নীতি নৈতিকতার লঙ্ঘন হয়েছে কিনা এটা উপলদ্ধি করতে পারেন।

বাংলাদেশ ডিবেট ফেডারেশনের (বিডিএফ) সভাপতি সঞ্জীব সাহা বলেন, সচেতন পাঠক হিসেবে নিজেদের মধ্যে সংবাদবোধ বাড়াতে বিতর্ক হচ্ছে একটি কার্যকর উপায়। এটি যেকোন বিষয়ে সমালোচনামূলক চিন্তা করার, যোগাযোগ এবং গবেষণা পদ্ধতি বাড়ানোর এক অনন্য উপায়।

এই ক্যাম্পেইনের অধীনে জাতীয় এবং আঞ্চলিক পর্যায়ে দুই দিন ব্যাপী বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হবে। এ লক্ষ্যে সারাদেশকে ১২টি অঞ্চলে ভাগ করে মোট ১৯৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রায় ৬০০ বিতার্কিকের অংশগ্রহণে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হবে।

প্রতি অঞ্চলে ১৬টি দল এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবেন। বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের পূর্বে সকল বিতার্কিকদের অংশগ্রহণে নীতি-নৈতিকতা মেনে শিশুদের জন্য ও শিশু সংক্রান্ত প্রতিবেদনে সংবাদবোধ এবং বিতর্কের বিষয় নিয়ে ব্রিফিং সেশনের আয়োজন করা হবে।