চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সংগীতে আরো এক নক্ষত্রের পতন, তারকাদের শোক

শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে হৃদরোগে আক্রান্ত শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন শাহনাজ রহমতউল্লাহ। কিংবদন্তী এ শিল্পীর মৃত্যুর খবরে শোবিজে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তারকারা সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখে চলেছেন শোক গাথা। 

শাহনাজ রহমতউল্লাহ’র মৃত্যুর খবরে সোশাল মিডিয়ায় শোক প্রকাশ করেন কিংবদন্তি শিল্পী রুনা লায়লা থেকে শুরু করে ফেরদৌসী রহমান, তপন চৌধুরীসহ প্রবীন-নবীন বহু শিল্পী।

বিজ্ঞাপন

নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী লিখেন, অসাধারণ একজন শিল্পী, শাহনাজ রহমতউল্লাহ।

দেশ সেরা চিত্রনায়ক শাকিব খান তার অফিশিয়াল ফেসবুক পেইজে শোক প্রকাশ করে লিখেন, প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী শাহনাজ রহমতুল্লাহ আর বেঁচে নেই। তার মৃত্যুতে সংগীতাঙ্গন হারালো আরেক নক্ষত্র। কিংবদন্তী এই গানের মানুষের আত্মার শান্তি কামনা করছি।

শাহনাজ রহমতউল্লাহকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করেন কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবর। তিনি লিখেন, টরন্টো থেকে প্যান্সিলভ্যানিয়া, নিউ জার্সি থেকে নিউইয়র্ক। দীর্ঘ ভ্রমণ শেষে হোটেলে আমার রুমে ঢুঁকেই দেখলাম আপা কোনের একটা সোফায় বসে আছেন। হতচকিত হয়ে জিজ্ঞেস করলাম- আপা আপনি আমার রুমে? তিনি অসন্তুষ্ট আয়োজকদের উপর। রাগ সব আমার উপরেই ঝাড়লেন, আমি থাকতে আপার রুমে আরেকজন এর সাথে রুম শেয়ারিং কেনো? তাড়াতাড়ি আপার জন্য আলাদা রুমের ব্যবস্থা করা হলো।

আপার ৫০তম বিয়ে বার্ষিকীতে সর্বকনিষ্ঠ দাওয়াতি আমি। হাদী ভাই, রবিন ঘোষ স্যার থেকে শুরু করে দেশের মহারথীদের মিলন মেলা। আপা ঘুরে ফিরে আমাকেই সবার সাথে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছিলেন। আমাদের বিশেষ কিছু শো একসাথে ছিল। আপা আমাকে আসিফ নামেই ডাকতেন, তবে উচ্চারণটা ছিল আলাদা’

আপা অনেক কিছু লিখতে ইচ্ছে হচ্ছে! তবে এই লিখার শেষ নেই আপা। আগের প্রজন্মের শেষ বংশধর হিসেবে আপনার কাজ এবং সৃষ্টির প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করি। ‘একবার যেতে দেনা আমার ছোট্ট সোনারগাঁয়’ নামাজ পড়ার সময় এই মহান মৃত্যুকে স্বাগতম আপা। যান আপা, ওখানে অনেক শান্তি অপেক্ষায়…! বিদায় শাহনাজ রহমত উল্লাহ। আপনিই বাংলাদেশ আপা, মহান আল্লাহ আপনার আত্মাকে শান্তি দিন।

চিত্রনায়িকা পপি লিখেন, আরেক নক্ষত্র চলে গেল আমাদের ছেড়ে। খুব কষ্ট হচ্ছে, এক এক করে সবাই চলে যাচ্ছে। আমাদের সবার প্রার্থনা, ওপারে ভালো থাকবেন আপনি।

কণ্ঠশিল্পী ও অভিনেত্রী মেহের আফরোজ শাওন লিখেন, সে হারালো কোথায় কোন দূর অজানায়…’। বিদায় কিংবদন্তী। শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা।

মাসুদ হাসান উজ্জ্বল লিখেন: এটা নিতান্তই আমার ব্যক্তিগত মতামত। আমার বিবেচনায় বাংলাদেশে এযাবৎ কালে যতজন মহিলা কণ্ঠশিল্পী জন্ম নিয়েছেন -শাহনাজ রহমতুল্লাহ তাঁদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ । সেটা তার কণ্ঠ , সংগীত নির্বাচন এর রুচি সব কিছু মিলিয়ে। তাঁর কণ্ঠে কোন কালে একটিও চটুল বা স্থুল গান শুনিনি! সম্ভবত সেই কারণেই উনার সমসাময়িকদের তুলনায় উনি ছিলেন অপেক্ষাকৃত কম জনপ্রিয়।

ব্যান্ড চিরকুট-এর অফিশিয়াল ফেসবুক পেইজ থেকেও জানানো হয় শোক। শোকবার্তায় চিরকুট জানায়, বাংলা সংগীতের কিংবদন্তী, অসংখ্য কালজয়ী বাংলা গানের শিল্পী শাহনাজ রহমতউল্লাহর মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে শোকাহত! আমরা প্রিয় এই শিল্পীর আত্মার শান্তি কামনা করছি।

চিরকুট ব্যান্ডের ভোকাল শারমিন সুলতানা সুমি লিখেন, বিদায় বাংলা সংগীতের সম্রাজ্ঞী। আপনি ছিলেন সবচেয়ে আলাদা, গানের অন্য রকম এক মায়াবতী। আপনি এক জীবনে যা দিয়ে গেছেন; তার ঋণ শোধ করা যাবে না কোনদিন। আজকের দিন সত্যিই অনেক শোকের। ওপারে ভাল থাকবেন প্রিয় কিংবদন্তী!