চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শ্রাবণ বাসের পহেলা শ্রাবণ বরণ

শ্রাবণ! ঝরঝরে বৃষ্টিমুখর দিনের প্রতিচ্ছবি ফুটে ওঠে এই মাসে।

শ্রাবণ মানে বাংলা বারো মাসের আকর্ষণীয় মাস। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রিয় মাস। তবে এই নামেই আছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যারয়ের শিক্ষার্থীদের একটি বাস।

বিজ্ঞাপন

শ্রাবণ বাসটি মানিকনগর, টিটিপাড়া, মুগদা, বাসাবো ও খিলগাঁও এলাকার শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে আনা-নেয়ার কাজে নিয়োজিত। বাসের যাত্রীরা যাত্রাপথে মাতিয়ে রাখেন পুরো পথ।

তারা শুধু বাসে রাজপথ মাতিয়ে রেখেই থেমে থাকেন না। সমাজের নানা কর্মকাণ্ডে লিপ্ত থাকেন। দুস্থদের পাশে দাঁড়ান। প্রতিবাদ করেন অন্যায়ের। উদযাপন করেন নানা উৎসব।

আজ পহেলা শ্রাবণ। দিনটিকে বরণ করে নিতে সুন্দর আয়োজন করেছে ’শ্রাবণ’ বাস স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন।

বিজ্ঞাপন

শ্রাবণকে বরণ করে নিতে দিনের শুরুতেই একঝাঁক শিক্ষার্থী তাদের প্রিয় বাসটিকে সাজিয়ে বর্ণিল করে তুলেন। দুপুরে শ্রাবণ স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মঝে খাবার বিতরণ করেন।

ছোট ছোট বাচ্চাগুলোর সঙ্গে শ্রাবণ রুট কমিটির সভাপতি ইসতিয়াক আহমেদ হৃদয়, সাধারণ সম্পাদক হাসিবুল ইসলাম বিজয়সহ উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ ডাকসু’র স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক সাদ বিন কাদের চৌধুরী, ক্রীড়া সম্পাদক শাকিল আহমেদ তানভীর এবং সদস্য নজরুল ইসলাম। শিশুদের সঙ্গে আনন্দঘন কিছু মুহূর্ত অতিবাহিত করেন তারা।

এরপরের আয়োজন ছিলো বিভিন্ন শিক্ষণীয় ও মজাদার কুইজ পর্ব। বিজয়ীদের মধ্যে পুরষ্কার তুলে দেন শ্রাবণ রুট কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক। আয়োজন শেষে হালকা খাবার বিতরণ করা হয় বাসে থাকা শিক্ষার্থীদের মাঝে।

শ্রাবণ বরণ নিয়ে বাস রুট কমিটির সভাপতি ইসতিয়াক আহমেদ হৃদয় জানান: প্রতি বছর আমরা পহেলা শ্রাবণে বিভিন্ন আয়োজন করে থাকি। এই আয়োজনে আমরা মানবিক দিকগুলো সামনে আনার চেষ্টা করি। শিক্ষার্থীদের মাঝে একটা আনন্দঘন মুহূর্ত তৈরিও একটি লক্ষ্য। এবার আমাদের আরেকটা উদ্যোগ অসহায়, সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের কথা চিন্তা করে তাদের মাঝে কিছু খাবার বিতরণ করা। আমরা বিশ্বাস করি এসব শিশুদেরকে কেবল করুণার দৃষ্টিতে না দেখে তাদের পাশে বিভিন্ন উপায়ে দাঁড়াতে পারলে একাকিত্ব দূর হবে, সুস্থ মানসিকতার বিকাশ ঘটবে।

Bellow Post-Green View