চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শ্রমিকদের ওপর ছিটানো হলো জীবাণুনাশক

ভারত জুড়ে চলছে ২১ দিনের লকডাউন। আর এই লকডাউনে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন শ্রমিকরা। তারা পড়ে গেছেন মহাসংকটে।

লকডাউন ঘোষণার পর হাজার হাজার শ্রমিক যখন ঘরে ফেরার চেষ্টায়, তখন প্রকাশ্যে আসলো একটি অমানবিক দৃশ্যের ভিডিও।

বিজ্ঞাপন

এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ভারতের উত্তরপ্রদেশের বরেলি জেলায় ধারণ করা একটি ভিডিওতে দেখা যায়, একদল শ্রমিকের শরীরের ওপরে বৃষ্টির মতো করে জীবাণুনাশক ছিটানো হচ্ছে। তাদের সঙ্গে রয়েছে নারী ও শিশুরাও।

ওই ভিডিওতে আরও দেখা যায়, রাস্তার ওপরে বসে রয়েছেন শ্রমিকরা। বসে থাকা শ্রমিকদের ওপরেই ছিটানো হচ্ছে জীবাণুনাশক। ওই সময় এক ব্যক্তিকে বলতে শোনা যায়, ‘নিজেদের চোখ বন্ধ করো। শিশুদেরও চোখ বন্ধ করে দাও‘।

পুরো ঘটনার সময় সেখানে উপস্থিত পুলিশকে দর্শকের ভূমিকায় দেখা গেছে।

বিজ্ঞাপন

জানা গেছে, শনিবার বিশেষ বাসে করে এই শ্রমিকদের দিল্লি, হরিয়ানা ও নয়ডা থেকে উত্তরপ্রদেশে নিয়ে আসার ব্যবস্থা হয়।

এই ঘটনার সমালোচনা করে কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বলেছেন, আমি উত্তরপ্রদেশের সরকারের কাছে অনুরোধ করছি, আমরা সকলেই একসঙ্গ এই সংকট মোকাবেলা করছি। দয়া করে এমন অমানবিক কাজ করবেন না। এই শ্রমিকরা এরই মধ্যে অনেক ভোগান্তির মধ্যে দিয়ে গেছেন। ওদের ওপর এভাবে রাসায়নিক জীবাণুনাশক ছিটাবেন না। এটা ওদের রক্ষা করবে না। বরং স্বাস্থ্যের ক্ষতি করবে।

তবে উত্তরপ্রদেশের এক সরকারি কর্মকর্তা এতে অমানবিকতার কিছু দেখছেন না বলে জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, আমরা অমানবিক হতে চাই না। সবাইকে জীবাণুমুক্ত করাটা অত্যন্ত জরুরি ছিল। সেখানে অনেক ভিড় ছিল। তাই যেটা ঠিক মনে হয়েছে, সেটাই করেছি আমরা।

ওই কর্মকর্তা আরও দাবি করেন, শ্রকিদের ক্লোরিন ও পানি মিশিয়ে জীবাণুনাশক দেওয়া হয়েছে। কোনো রাসায়নিক দ্রবণ দিয়ে নয়। তাছাড়া তাদেরকে চোখ বন্ধ করে নিতেও বলা হয়েছিল।

ভারতে ইতোমধ্যে বিশ্ব মহামারী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ১ হাজার ৭১ জন মানুষ। আর মৃত্যূ হয়েছে ২৯ জনের।