চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শীর্ষ ধনী হতে পারেন আর্নল্ট

বিশ্বের শীর্ষ ধনীদের তালিকাটি নিয়মিত একটি জায়গায় ঘুরপাক খায়। হয় বিল গেটস, নয়তো জেফ বেজোস শীর্ষ ধনীর স্থানটি দখলে রাখেন নিয়মিত। তবে এবার অন্য একজন সেই স্থান দখল করতে পারেন বলে মনে করছে বিশ্বখ্যাত ম্যাগাজিন ফোর্বস।

বিশ্বের শীর্ষ ধনীদের জরিপ পরিচালনায় স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানটি বলছে, আমাজানের প্রধান নির্বাহী জেফ বেজোস এবং বিল গেটসকে বিস্ময় উপহার দিয়ে বিশ্বের শীর্ষ ধনী হতে পারেন ফ্রান্সের বিলাসবহুল পণ্যের এলভিএমএইচ এর প্রধান নির্বাহী বার্নার্ড আর্নাল্ট।

বিজ্ঞাপন

সিএনএন জানায়, জেফ বেজোস এবং বিল গেটস লুই ভিটনের কাছ থেকে প্রচুর চামড়ার ওয়ালেট এবং টিফানির ছোট্ট নীল বাক্সগুলি বহন করতেই পারেন। তবে বিশ্বের দুই ধনী ব্যক্তি খুব শিগগিরই বিস্মিত হতে চলেছেন। কারণ, এলভিএমএইচ এর প্রধান নির্বাহী টিফানি কিনে নেওয়ার কারণে তাদের চেয়ে এগিয়ে যেতে পারে এলভিএমএইচ এর প্রধান নির্বাহী বার্নার্ড আর্নল্ট।

ফোর্বসের রিয়েল টাইম বিলিয়নিয়ারের র‌্যাঙ্ক অনুযায়ী প্যারিস ভিত্তিক কোম্পানি এলভিএমআইচ এর চেয়ারম্যান এন্ড সিইও বার্নার্ড আর্নল্ট এর বর্তমান সম্পদের পরিমাণ ১০৬ বিলিয়ন। তবে আর্নল্ট এর নিট সম্পদের পরিমাণ সোমবার ১% বেড়ে যায়, যখন এলভিএমএইচ কোম্পানি মার্কিন ভিত্তিক জুয়েলার্স টিফানি এন্ড কো ১৬ বিলিয়ন ডলারের বেশি অর্থ ব্যয় করে কিনে নেন। আর্নল্ট এবং তার পরিবার ৪৭% ফ্রান্স লাক্সারি পণ্যের জায়ান্ট হিসেবে পরিচিত।

বিজ্ঞাপন

টিফানি কেনার পর এলভিএমএইচ এর শেয়ারের মূল্য বেড়ে যাওয়ায় আর্নল্ট এর শীর্ষ ধনী হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে বলছে ফোর্বস ম্যাগাজিন।

এর আগে কয়েকদিন আগে মোট সম্পদের হিসাবে এক দিনের জন্য বিল গেটসকে হটিয়ে বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ ধনী হয়েছিলেন বার্নার্ড আর্নল্ট। ৬ নভেম্বর এ ঘটনা ঘটে। অবশ্য নিজের স্থানটি পুনরুদ্ধার করতে এক দিনের বেশি সময় নেননি গেটস।

গত মার্চ মাসে প্রকাশিত ফোর্বসের শীর্ষ ধনী তালিকায় আর্নল্টের আকাশছোঁয়া সম্পদের পরিমাণের তথ্য প্রকাশের পর আর্নল্ট এর মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দর বাড়তে থাকে।

অবশ্য বিল গেটস, জেফ বেজোস এবং বার্নার্ড আর্নাল্ট বিশ্বের অন্যান্য শীর্ষ ধনীদের চেয়ে অনেক বেশি এগিয়ে আছেন।

শীর্ষের তালিকায় থাকা অন্যদের সম্পদের পরিমাণের মধ্যে রয়েছে ওয়ারেন বাফেটেরে সম্পদ ৮৬ বিলিয়ন ডলার এবং ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গের ৭৫ বিলিয়ন ডলার।