চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শিশুর জন্মদিন কেন পালন করব

জন্মদিন আসলে কী?
Fein (2018) বলেছেন, ‘জন্মদিন হলো সেই দিন, যে দিন আপনি পৃথিবীর আলো প্রথম দেখেছিলেন, বিশ্বের সাথে বেঁধেছিলেন আপনার প্রাণ, আজীবনের ব্যস্ততা। এবং প্রতি বছর এই দিনটিতে আপনি বন্ধুস্বজনদের কাছ থেকে প্রতিক্রিয়া পাবেন।’

জন্মদিন পালন করার প্রথা কত পুরনো?
Rojaka & Lesinskienė (2018) বলেছেন, ধারণা করা হয়, ব্যক্তির জন্মদিন পালনের রেওয়াজ সেই প্রাচীনকালেই শুরু হয়েছিল। অবশ্য কতপ্রাচীন, তা নিশ্চিত করেননি এ দুই গবেষক।

বিজ্ঞাপন

জন্মদিনের আয়োজন বড়দের বেলাতে ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। লিথুয়ানিয়ার ভিলনিয়াস বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩০৯ জন মেডিক্যাল শিক্ষার্থীর ওপর জরিপ চালিয়ে Lesinskienė (2018) দেখেছেন, জন্মদিনে এসব শিক্ষার্থীর মন ভালো হয়ে যায় এবং তারা আরও বেশি ভালোবাসা বোধ করে।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু জন্মদিনকে শিশুরা কীভাবে দেখে?
এ নিয়ে গবেষণা করেছেন রমা ক্লাভির ও ডেভিড লিজার। তারা চার থেকে নয় বছর বয়সী ১০২ ইসরায়েলি শিশুর সঙ্গে আলাপ করে তা বোঝার চেষ্টা করেছিলেন। Klavir & Leiser  (2012) বলছেন, তাদের গবেষণায় দেখা গেছে, শিশুরা জন্মদিনকে পুরো সামাজিক একটা প্রথা মনে করে; তারা ভাবে, জন্মদিনের আয়োজন নতুন এক বয়সের কথা জানান দেয় এবং শিশুরা বিশ্বাস করে, জন্মদিন দিয়ে যে কারো বয়স মাপা যায়: যদি যতবার জন্মদিন পালন হবে তত তার বয়স বাড়বে, আর যদি জন্মদিন পালন করা থেকে বিরত থাকা হয় তাহলে বয়স বাড়বে না।

জ্যাকলিন উলি এবং আমান্ডা রোডস এ ধরনের একটি গবেষণা পরিচালনা করেছিলেন। এতে অংশ নিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের ৯৯ শিশু যাদের বয়স তিন থেকে পাঁচ বছর। প্রথমে তাদের একটা গল্প শোনানো হয়েছিল। গল্পটা এমন: দুই বছর বয়সী তিনটা শিশু আছে। কদিন বাদেই তাদের জন্মদিন, অর্থাৎ তাদের বয়স তিন বছর পূর্ণ হয়ে যাবে। কিন্তু প্রথম শিশুটির জন্মদিন পালন হলো, দ্বিতীয় শিশুর জন্মদিন পালন হলো না, আর তৃতীয় শিশুর জন্মদিন দুই পর্বে পালন হলো।

এরপর জরিপে অংশ নেওয়া ওই স্বেচ্ছাসেবী শিশুদের জিজ্ঞাসা করা হলো, গল্পের তিন শিশুর বয়স কত হলো? Woolley & Rhoads (2019) গবেষণায় দেখলেন, বেশিরভাগ শিশু মনে করে: যে শিশুটির জন্মদিন পালন হয়নি, সে এখনও দুই বছর বয়সী; আর যার জন্মদিন দুবার পালন হয়েছে, তার বয়স চার বছর।

তবে জন্মদিন শুধু বয়স মাপার গণিত নয়, এটা আসলে আত্মবিশ্বাস ও সামাজিক সম্পর্ক বাড়ানোরও সহায়।
প্রত্যেক শিশুর একটা জন্মদিন আছে। কিন্তু প্রত্যেকের জন্মদিন পালন হয় না। আর হলেও সবার জন্মদিন একভাবে পালন হয় না (Feldman, 2014)।

Harries (2013) বলেছেন, যে শিশুরা আত্মবিশ্বাসী, জন্মদিনের সময় তারা অন্যদের মনোযোগ আকর্ষণ করতে চায়, এটা সাধারণ অভিজ্ঞতা। এর ফলে তারা নিজেদের সম্পর্কে বলতে পারে এবং নিজের ভাবনা ভাগ করে নেওয়ার সুযোগ পায়। তবে কিছু শিশুর বেলায় উল্টোটা ঘটে, তারা বরং নিজেকে একা ও বিচ্ছিন্ন বলে মনে করে, সে যে অর্থেই হোক। সে জন্য, এ বিষয়ে সতর্ক থাকা চাই; একেক শিশুর জন্মদিন পালনে একেক রকম ও যুতসই আয়োজন হওয়া চাই।

২০০৯ সাল ছিল প্রাকৃতিক নির্বাচন মতবাদের প্রবক্তা চার্লস ডারউইনের জন্মদ্বিশতবর্ষ এবং ওই সাধকের অমরসৃষ্টি ‘অন দি অরিজিন অব স্পেসিস’ গ্রন্থের দেড়শ বছর পূর্তি। এ উপলক্ষে নেচারে একটি প্রবন্ধ লিখেছিলে বিজ্ঞানের ইতিহাসকর জ্যানেট ব্রাউনি।

Browne (2008)’ বলেন , ‘বিজ্ঞানে, সত্যিকারের অমূল্য অর্জনের প্রভাব ছড়িয়ে দিতে, পরস্পরের সঙ্গে ভাবনা ভাগ করে নিতে, দিকপালদের মর্যাদা নিয়ে আলোকপাত করতে এবং নতুন সমস্যার সমাধান পাওয়ার প্রচেষ্টায় যে কোনো ধরনের বার্ষিকী আমাদের সাহায্য করে।’

বিজ্ঞাপন

ব্রাউনির কথার সূত্র ধরে বলা যায়, শিশুর জন্মদিন পালনে অন্তত পরস্পরের সঙ্গে ভাবনা ভাগ করে নেওয়ার সুযোগ মেলে।

জন্মদিন উদযাপনের মধ্য দিয়ে শিশুরা বুঝতে পারে, তারা সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন নয়, বরং সমাজবদ্ধ। কিন্তু এই মহামারীর সময় শিশুর জন্মদিনে প্রথাগত সেই আয়োজন তো সম্ভব নয়, বা উচিত নয়, তাহলে? এই ক্ষেত্রে প্রাযুক্তিক উপায়ে সামাজিক সম্পর্কগুলো যেভাবে আমরা রক্ষা করছি, ঠিক একই ভাবে সাধ্যমতো প্রযুক্তি ব্যবহার করে কাছের মানুষগুলোর সঙ্গে শিশুকে ভার্চুয়ালি যুক্ত করা যেতে পারে তার জন্মদিনে।

যেমনটা আমরা পালন করেছি আমাদের সন্তানের প্রথম জন্মবার্ষিকী। ২ জুলাই ২০২০ এক বছর পূর্ণ করল প্রজ্ঞান নক্ষত্র। তার জন্য এক মহাকাশ ভালোবাসা।

তথ্যসূত্র
Browne, J. Birthdays to remember. Nature 456, 324–325 (2008). https://doi.org/10.1038/456324a

Fein, J. (2018). Why your birthday matters. www.psychologytoday.com/us/blog/life-is-trip/201806/why-your-birthday-matters

Feldman, E (2014). Birthdays!: Celebrating Life Around the World. New York: StarWalk Kids Media.

Harries, J. (2013). Celebrating birthdays. Practical Pre-School Vol. 2004, No. 46, doi: 10.12968/prps.2004.1.46.40000

Klavir, R., & Leiser, D. (2002). When Astronomy, Biology, and Culture Converge: Children’s Conceptions About Birthdays, The Journal of Genetic Psychology, 163:2, 239-253, DOI: 10.1080/00221320209598681

Rojaka, D., & Lesinskienė, S. (2018). A survey of some aspects of birthday celebration. Acta medica Lituanica, 25(2), 107–111. https://doi.org/10.6001/actamedica.v25i2.3764

Woolley, J. D., & Rhoads, A. M. (2019). Now I’m 3: Young Children’s Concepts of Age, Aging, and Birthdays. Imagination, Cognition and Personality, 38(3), 268–289. https://doi.org/10.1177/0276236617748129