চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শিশুদের তথ্য: ইইউর তদন্তের মুখে ইনস্টাগ্রাম

ইনস্টাগ্রামে শিশুদের ব্যক্তিগত তথ্য নিয়ন্ত্রণের পদ্ধতি পর্যবেক্ষণ করছে আয়ারল্যান্ডের ডাটা প্রটেকশন কমিশনার (ডিপিসি)।

ফেসবুকের মালিকানাধীন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমের এই অ্যাপটিকে বড় সংখ্যার জরিমানা গুণতে হবে যদি তদন্তে তাদের বিরুদ্ধে গোপনীয়তা আইন ভঙ্গের অভিযোগ প্রমাণিত হয়।

বিজ্ঞাপন

ইনস্টাগ্রাম ব্যবসায়িক অ্যাকাউন্টগুলোর যোগাযোগের তথ্য সবার কাছে উন্মুক্ত করে দিয়েছে এমন অভিযোগ আসার পরে এই তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

বেশ কয়েকটি মার্কিন টেক জায়ান্টের আয়ারল্যান্ডে ইউরোপীয় সদর দপ্তর রয়েছে এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের জেনারেল ডেটা প্রোটেকশন রেগুলেশন (জিডিপিআর) এর অধীনে ইউরোপীয় ইউনিয়নের রেগুলেটরের নেতৃত্বদাতা ডিপিসি।  ২০১৮ সাল থেকে কাজ করছে তারা।

বিজ্ঞাপন

ব্যক্তির অনলাইন গোপনীয়তার অধিকার রক্ষার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত ডিপিসি। তা ভঙ্গ হলে প্রতিষ্ঠানকে বড় পরিমাণ জরিমানা করার ক্ষমতাও রয়েছে তাদের।

আইরিশ এই নিয়ন্ত্রকটি শিশুদের ব্যক্তিগত তথ্য প্রক্রিয়াকরণের জন্য ফেসবুকের আইনী ভিত্তি আছে কিনা এবং তা শিশুদের জন্য ইনস্টাগ্রাম পর্যাপ্ত সুরক্ষা এবং বিধিনিষেধ নিযুক্ত করে কিনা তা খতিয়ে দেখছে।

পৃথকভাবে তারা অনুসন্ধান করছে যে ইনস্টাগ্রামের প্রোফাইল এবং অ্যাকাউন্ট সেটিংসের সাথে ফেসবুক জিডিপিআরের চাওয়াগুলো পূরণ করছে কিনা। যেহেতু শিশুরা খুবই ভঙ্গুর পরিস্থিতিতে থাকে তাই ফেসবুক শিশুদের তথ্য সুরক্ষা অধিকারগুলি রক্ষা করছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থাকার জন্য সর্বনিম্ন বয়স নির্ধারিত রয়েছে ১৩ বছর।

ডিপিসির ডেপুটি কমিশনার গ্রাহাম ডয়েল বলেন, ইউরোপ ও আয়ারল্যান্ডে খুবই বিস্তৃতভাবে শিশুরা ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করছে। ডিপিসি এই অঞ্চলে প্রাপ্ত অভিযোগগুলো সক্রিয়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে এবং ইনস্টাগ্রামে শিশুদের ব্যক্তিগত তথ্য প্রক্রিয়াকরণের ক্ষেত্রে সম্ভাব্য উদ্বেগ শনাক্ত করেছে যেগুলোর আরও পরীক্ষা প্রয়োজন।