চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শিশির বিন্দু

অরিত্র
শুনতে পাচ্ছো?
আরে তাকাও পেছনে,
দেখতে পাচ্ছো কিছু?
সবুজ ঘাস, বিশাল মাঠ
অনেক দূরে পাহাড় আর পাহাড়,
দেখতে পাচ্ছো অরিত্র?
ঝর্ণার রিনিঝিনি মূর্ছনায় মনটা উদাস হয়ে উঠছে,
তুমি কী জানো, নীল পাহাড়ের বন্ধু এই ঝর্ণা!!
সামনে তাকাও অরিত্র
প্রজাপতিরা এলোমেলো ছুটে বেড়াচ্ছে;
আমি কী ওদের সাথে যাবো?
আমি এগুচ্ছি, তুমি তাড়াতাড়ি এসো কিন্তু,
এই বলে আমি সামনের পথ ধরে হাঁটতে শুরু করলাম;
হালকা বাতাস বইছে প্রকৃতি জুড়ে,
আকাশেরও কেন যেনো আজ মন ভালো নেই।
ঘন কালো মেঘে ছেয়ে গেছে পুরো বন;
এই অরিত্র, তুমি কোথায়
শুনতে পাচ্ছো আমার কথা?
কোথায় যে হারিয়ে যাও তুমি, বুঝি না।
তুমি যেনো প্রকৃতির মতোই উদাসীন;
আমি এগিয়ে যাচ্ছি প্রশস্ত পথ ধরে;
সামনে পাহাড়, ছুয়ে দেখতে ইচ্ছে করছে,
আমি একাই হাঁটছি,
এখনো ভোর হয়নি
আলো আঁধারির সন্নিবেশ
চারদিক নিস্তব্ধ।
পায়ের নিচে শুকনো পাতার কড়মড় শব্দ
সাথে আমার নিজের নিঃশ্বাস
পাখিরা মেঘে ডানা মেলেছে;
গহীন অরণ্যে ভালোবাসার ঘ্রাণ পাচ্ছি,
তুমি কী পাচ্ছো?
হঠাৎ পেছনে তাকালাম,
মনে হলো অরিত্র তুমি এসে দাঁড়িয়েছো।
কেউ নেই,
অরিত্র তুমি কোথায় বলো তো!!
ফিরতে হবে;
হাঁটতে হাঁটতে বেশ খানিকটা দূরে চলে এসেছি;
আসার সময় কটেজের বাতিটি কী নিভিয়ে ছিলাম?
মনে করতে পারছি না।
অরিত্রটা যে কোথায়!
ওকে নিয়ে আর পারি না;
ওকে ছাড়াই পাহাড় দেখতে যাবো;
সামনে চোখ পড়তে বিস্ময়ে আমি হতবাক
রাতের শিশিরের ছোঁয়ায়
সিক্ত পাহাড়চূড়া আমাকে চুম্বকের মতো টেনে নিয়ে যাচ্ছে।
আমি অনুভব করছি
অজানা এক স্রোত বয়ে যাচ্ছে আমার অস্তিত্বে
আমার খুব কষ্ট হচ্ছে অরিত্র;
এই অনুভূতির নাম আমার জানা নেই।
আমি আকাশের দিকে তাকালাম
ধীরে ধীরে পাহাড় স্পর্শ করে
সূর্য প্রবেশ করছে পৃথিবীতে।
আমি অরিত্রকে খুঁজছি
তুমি কী শিশির বিন্দু হতে পারো না?
পাহাড়ের মতো আমিও প্রকৃতির গভীরতায়
স্বাদ নিতে চাই অরণ্যের;
স্নাত হতে চাই শিশির বিন্দুর ছোঁয়ায়।
অরিত্র, তুমি কী শিশির বিন্দু হবে?

বিজ্ঞাপন