চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শিল্পের জন্য কেউ নেই, সবাই ব্যস্ত পণ্য বিক্রিতে: মাসুম আজিজ

বাংলাদেশের টেলিভিশন নাটকের পরিচিত মুখ মাসুম আজিজ। টেলিভিশন ছাড়াও মঞ্চ এবং চলচ্চিত্রে অভিনয়ের খ্যাতি আছে। চার শতাধিক নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। নাটক লেখা ও পরিচালনা ছাড়াও নির্মাণ করেছেন চলচ্চিত্র। টানা ২১ বছর খাটাখাটনি করে বছর দুই আগে নির্মাণ করেছেন পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমা ‘সনাতন গল্প’।

সম্প্রতি তিনি এসেছিলেন চ্যানেল আই স্টুডিওতে। অংশ নিয়েছেন শাহরিয়ার নাজিম জয়ের উপস্থাপনা ও বিপ্লব সেহাঙ্গলের পরিচালনায় চ্যানেল আইয়ের জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘৩০০ সেকেন্ড’ এ। যে অনুষ্ঠানে মাসুম আজিজ সমকালীন নাট্য ও সিনেমা চর্চার ধরন সম্পর্কে বলার পাশাপাশি ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও কথা বলেছেন অকপটে।

বিজ্ঞাপন

লেখনি, নির্মাণ কিংবা অভিনয়ে আগের সেই তেজস্বী মাসুম আজিজকে পাওয়া যাচ্ছে না। তবে কি তিনি ফুরিয়ে যাচ্ছেন? ছন্দপতন হয়েছে কোথাও? এটা কি বয়সের কারণে, নাকি অন্যকিছু?

অনুষ্ঠানের শুরুতেই তুখোড় এই নাট্য নির্মাতার কাছে ছিলো এমন প্রশ্ন। অকপটে বললেন নিজের পর্যবেক্ষণ। মাসুম আজিজ জানালেন, মুক্ত বাজার অর্থনীতিতে এখন সবকিছুই পণ্য হিসেবে বিবেচনা করা হয়। এই পণ্য বিক্রিতে সবাই এখন অস্থির, শিল্পের জন্য কেউ নাই এখন। শিল্পের জন্য যখন কেউ থাকবে না, সবকিছু যখন অর্থের উপরে নির্ভর করবে তখন আসলে আমি কেন, সারা দুনিয়াতেই কোনো একটি মানুষ যার ভেতরে সামান্য সৃষ্টিশীলতা আছে- তাকে মিলিয়ে যেতে হবে। তার ছন্দ পতন হতে বাধ্য।

এমন পরিস্থিতিতে যারাই নিজেদের খাপ খাইয়ে নিতে পেরেছেন, তারাই পরবর্তীতে টিকে থাকবেন। যারা পারেননি, তারাই পিছিয়ে যাবেন? এটাই কি বাস্তবতা? এমন প্রশ্নে মাসুম আজিজের সোজাসাপ্টা উত্তর, ‘আমরা বদলাতে চাইনি। খাপ খাইয়ে চলতে আমরা চাইনি। তার কারণ হলো, আমি শিল্প নিয়েই থাকতে চেয়েছি। আমি ভাবতে পারি না, শিল্প এরকম সস্তা পণ্যতে পরিণত হতে পারে। হ্যাঁ, শিল্প পণ্য- কিন্তু এরকম খুচরো পণ্যর সাথে আমি খাপ খাওয়াতে যেতে পারি না।’

তিনি মনে করেন, শিল্পের কাজ এখনও হচ্ছে। আয়নাবাজি, মনপুরা বা এরকম কিছু সিনেমাওতো এখন চলছে। তারজন্য কি আমি অই জায়গাতে গিয়ে সেরেন্ডার করতে হবে, যে জায়গাটা শুধুমাত্র মানুষকে বিনোদনের নামে কিছু উদ্ভট জিনিষ ঢুকিয়ে দিয়ে মানুষের পকেট থেকে টাকা আদায় করে নেয়া? এটা আর যাই হোক, কোনো ধরনের শিল্প হতে পারে না।

শিল্পীরা এখন রাজনীতি ঘেঁষা। প্রকাশ্যে রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হচ্ছেন অনেকে, যা আগে খুব একটা দেখা যায়নি। এ বিষয়েও কথা বলেন মাসুম আজিজ। তিনি বিষয়টিকে ইতিবাচক মনে করে বলেন, রাজনৈতিক ব্যবস্থায় মানুষের জন্ম। কোনো মানুষ রাজনৈতিক নন, এটা কখনো সত্য হতে পারে না। আমি নিজেও রাজনৈতিক একজন মানুষ। নিরপেক্ষতা বলেও কোনো শব্দ থাকতে পারে না, এরমানে হলো সুবিধাবাদীতা।

নিজের রাজনৈতিক অবস্থান নিয়ে চ্যানেল আইয়ের জনপ্রিয় এই শোতে অভিনেতা বলেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে আওয়ামী লীগ করি না, কিন্তু নৌকায় ভোট দেই। কারণ আমার বিকল্প নেই। স্বাধীনতাবিরোধীদের গাড়িতে ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তে রঞ্জিত জাতীয় পতাকা দেখতে চাই না, নিজামীর গাড়িতে পতাকা দেখলে আমার চোখের সামনে মা বোনের ধর্ষিত লাশগুলো ভেসে উঠে। শুধু এই একটি কারণে নৌকায় ভোট দেই।