চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শিবচরে গৃহবধু গণধর্ষণের শিকার, নারীসহ গ্রেপ্তার ২

মাদারীপুর জেলার শিবচরে এক সন্তানের জননী গৃহবধুকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শনিবার রাতে শিবচর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী। রাতেই পুলিশ ধর্ষণে জড়িত থাকা ও সহযোগিতার অভিযোগে দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

ভুক্তভোগী গৃহবধু ও মামলা সূত্রে জানা যায়, শনিবার দুপুরে উপজেলার পাঁচ্চর সোনার বাংলা প্লাজার সামনে থেকে জোরপূর্বক এক গৃহবধুকে একটি ইজিবাইকে উঠিয়ে পাঁচ্চর বাখরেরকান্দি প্রজেক্টের মধ্যে একটি একতলা বাড়িতে নিয়ে যায় আখি আক্তার, সুবল মন্ডল ওরফে সুমন মোল্লাসহ পাঁচ ব্যক্তি ব্যক্তি। সেখানে হাত-পা ও মুখ বেঁধে আটকে রেখে বিকেল পর্যন্ত দুই দফায় সোহেল, এসকান ও সুবল মন্ডল নামের তিনজন ধর্ষণ করে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

পরে বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে মুখ বেঁধে ইজিবাইকে করে পুনরায় ধর্ষণের জন্য অন্যত্র নেয়ার সময় কৌশলে মুখ খুলে চিৎকার দিলে স্থানীয়রা ইজিবাইকটির পথরোধ করে। এসময় ইজিবাইকে থাকা আসামীরা দ্রুত পালিয়ে গেলে গৃহবধুকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা।

বিজ্ঞাপন

রাতে শিবচর থানায় ভুক্তভোগী গৃহবধু বাদী হয়ে ধর্ষণে সহযোগিতাকারী এক নারীসহ পাঁঁচজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করেন। মামলার আসামীরা হচ্ছে: আখি আক্তার (২৫), সুবল মন্ডল (৩২), সোহেল (৩৫), এসকান (৩৭) ও অটোরিক্সা চালক সোহাগ হাওলাদার (৩৫)।

শিবচর থানা সূত্র জানায়, মেডিকেল রিপোর্টের জন্য ভুক্তভোগীকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মিরাজ হোসেন বলেন, ধর্ষণের ঘটনার মামলায় আখি আক্তার ও সোহাগ হাওলাদারকে আটক করা হয়েছে।