চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শাশ্বতের বদলে কেন অভিষেক?

সুজয় ঘোষের ২০১২ সালের ‘কাহানি’ ছবির মাধ্যমে ‘বব বিশ্বাস’ চরিত্রটির সঙ্গে পরিচিত হয়েছিল দর্শকরা। শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় ঝড় তুলেছিলেন আলুথালু চেহারার, ঠাণ্ডা মাথার ভাড়াটে খুনি বব বিশ্বাস চরিত্রে।

৯ বছর পর আবার ফিরছে চরিত্রটি। তবে এবার শাশ্বত নয়, অভিষেক বচ্চনকে দেখা যাবে জনপ্রিয় এই চরিত্রে। শাশ্বতের জায়গায় অভিষেককে কেন নেয়া হল সেই কথা জানিয়েছেন সুজয় ঘোষ।

সুজয় ঘোষের মেয়ে দিব্যা অন্নপূর্ণা ঘোষের হাত ধরে ৩ ডিসেম্বর ওটিটি প্লাটফর্ম জি ফাইভে আসছে ‘বব বিশ্বাস’। মুক্তি পেয়েছে ছবির ট্রেলার। ট্রেলারে মোটা গোল ফ্রেমের চশমা, আঁচড়ানো চুল, ভোলাভালা লুকে দেখা গেছে অভিষেককে। তবে ছবির ট্রেলার মুক্তির পর থেকেই নেটিজেনের একাংশের মধ্যে নানা তর্ক-বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। কারো মতে বব বিশ্বাসের চরিত্রে শুধুমাত্র শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়কেই মানায়। আবার অনেকে প্রশ্ন তুলেছেন, এই চরিত্রে অভিষেক কী শাশ্বতের মতো অভিনয় করতে পারবেন?

বিজ্ঞাপন

এই প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে সুজয় ঘোষ বলেছেন, “শাশ্বতের তৈরি করা বব বিশ্বাসের পৃথিবী নতুন করে তৈরি করা অসম্ভব নয়। আমি যদি ছবি নির্মাণ করতাম তাহলে হয়তো শাশ্বতকে নিতাম, কিন্তু ছবিটি দিয়া নির্মাণ করছে। তাই এটি তার পছন্দ। এটি তার ভার্সন। আমরা নতুন ছবি তৈরি করতে চেয়েছি, যেখানে ‘কাহানি’র ববের চেয়ে আলাদা এক ববকে দেখা যাবে।”

তিনি আরও বলেন, “নির্মাতা সতর্কভাবেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কারণ আমরা ‘কাহানি’র চেয়ে আলাদা কিছু চাইছিলাম। বব বিশ্বাসকে নিয়ে এক নতুন পৃথিবী দেখাতে চেয়েছি যেখানে নতুন গল্প দেখানো হবে। একারণেই আমি ছবিটি পরিচালনা করছি না।’

নতুন ‘বব বিশ্বাস’ ছবির গল্পে দেখা গেছে, স্মৃতিশক্তি হারিয়েছেন বব। স্ত্রী, দুই ছেলে মেয়ে কাউকেই চিনতে পারছেন না। এমনকি তার পেশা যে মানুষ খুন করা সেটাও ভুলে গিয়েছেন। কিন্তু ববকে মনে করানোর দায়িত্ব নেন তারা যাদের হয়ে এক সময় খুন করার কাজ করেছেন তিনি। ফের অপরাধ জগতে ফেরেন বব বিশ্বাস।

বিজ্ঞাপন