চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

লুঙ্গি, গামছা পরা এক সংসদ সদস্যর গল্প

কোন কোন সংসদ সদস্যর বিরুদ্ধে আছে খুনের অভিযোগ, কারো বিরুদ্ধে অভিযোগ দুর্নীতির মাধ্যমে অঢেল সম্পত্তি অর্জনের, আবার অনেকের বিরুদ্ধে রয়েছে ক্ষমতার অপব্যবহার করে জনবিরোধী কর্মকাণ্ড চালানোর অভিযোগ। তবে তাদের চেয়ে আলাদা আর অন্যরকম সংসদ সদস্যও আছেন। তিনি এস এম জগলুল হায়দার। সাতক্ষীরা-৪ আসনের সংসদ সদস্য।

নির্বাচিত হবার পর গত ৩ বছর ধরে এলাকার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করছেন তিনি। আপামর জনতার সঙ্গে মিশে থাকার এক অদম্য আকাঙ্ক্ষা তার।

বিজ্ঞাপন

জগলুল হায়দারের এসব কর্মকাণ্ড কয়েক বছর ধরে চাপা থাকলেও সম্প্রতি লুঙ্গি, গামছা পরে সাধারণ শ্রমিকদের সঙ্গে মাথায় করে মটি নিয়ে বাঁধ নির্মাণের ছবি ছড়িয়ে পড়ে গণমাধ্যমে। এরপরই তিনি আসেন অালোচনায়। তার শত ব্যস্ততার মাঝেও শত শত শ্রমিকের সঙ্গে সবসময় এভাবে কাজে নেমে যাবার কারণটা কি?

উত্তর মেলে এই সাংসদের কাছ থেকেই। চ্যানেল আই অনলাইনকে এস এম জগলুল হায়দার বলেন, ‘গত ৩ বছর যাবৎ আমি আমার এলাকায় থেকে কাজ করে যাচ্ছি। অামি সবসময় চাই দেশের মাটি ও মানুষের সঙ্গে মিশে কাজ করতে। চাই সব জনপ্রতিনিধিরা মাঠপর্যায়ে নেমে কাজ করুক। সাধারণ মানুষের সঙ্গে মিশে উন্নয়নমূলক কাজে অংশ নেয়াই আমার লক্ষ্য। আমি যখন তাদের সঙ্গে কাজ করি তখন তারাও অনেক বেশি উৎসাহিত হয়। তাদের মত লুঙ্গি, গামছা পরে যখন আমি তাদের সঙ্গে কাজে নামি তখন তাদের অনেক কাছের মানুষ হিসেবে গণ্য হই আমি। তারা আমাকে তাদের আপন ভাবতে শুরু করে। কাজের প্রতি তাদের উদ্যম বেড়ে যায় দ্বিগুণ।’

‘‘অনেক ক্ষেত্রে তারা পারিশ্রমিকও কম নেয়। সরকারি কাজে ফাণ্ড আসতেও অনেক সময় দেরি হয়। সেক্ষেত্রে আমি কাজে গেলে সবাই এগিয়ে আসে খুব সহজেই কাজ সম্পন্ন হয়ে যায়। অনেকে এসে যোগ দেয় কাজে। স্বেচ্ছাসেবক হয়ে অংশ নেয়।’’

‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে এ ধরণের কাজের কোন বিকল্প নেই। এসি বাড়ি গাড়ি পরিহার করে জনপ্রতিনিধিরা মাঠে নেমে আসলেই গড়া সম্ভব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশ।’

জগলুল হায়দার সাধারণ মানুষের সঙ্গে  তাদের মতো করেই মিশতে চান। সুখে-দুঃখে, বিপদে-আপদে তাদের পাশে থাকতে চান। সাধারণ মানুষের কষ্টটা তাদের মতো করেই বুঝতে চাওয়ার এক প্রবণতা দেখা যায় তার মাঝে ।

‘‘গ্রীষ্মের দাবদাহে তপ্তদুপুরে শ্রমিকরা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে যে কষ্ট করে কাজ করে আমি তাদের কষ্টটা উপলদ্ধি করতে চাই। আর এজন্যই আমার কাজ করা। আমি এভাবেই কাজ করে যেতে চাই সাধারণ মানুষের জন্য। আমার দেশের জন্য।’’

সুন্দরবনের কোল ঘেঁষে আইলা বিধ্বস্ত শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নের পূর্ব দূর্গাবাটি এলাকার সংসদ সদস্য এস এম জগলুল হায়দার। নির্বাচিত হবার পর থেকেই বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের জন্য এলাকার মানুষের কাছে অনেক জনপ্রিয় তিনি।

 

বিজ্ঞাপন