চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

লুইসের পরিকল্পিত ঝড়ে উড়ে গেল চিটাগং

Nagod
Bkash July

চট্টগ্রাম থেকে: স্কয়ার লেগ দিয়ে একটি। ডিপ-মিডউইকেট দিয়ে তিনটি। লংঅনের উপর থেকে দুটি। ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ার লেগ দিয়ে দুটি। অর্থাৎ ৩১ বলে ৭৫ করতে লেগসাইড দিয়ে এভিন লুইসের ছয়ের সংখ্যা আটটি। বিপরীতে অফসাইডের লংঅফ দিয়ে মাত্র একটি। চিটাগং ভাইকিংসকে ৭ উইকেটে হারাতে লুইসের এমন তাণ্ডব মোটেও কাকতালীয় কিংবা ‘হয়ে যাওয়া’র মত ব্যাপার নয়। তার পরিকল্পনা বুঝতে হলে আগের দিনের অনুশীলনের গল্প শুনতে হবে।

Reneta June

রোববার ঢাকা ডায়নামাইটসের অনুশীলন ছিল র‌্যাডিসন হোটেলের পাশে এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে। লুইস যে নেটে ব্যাটিং প্রাকটিস করছিলেন, সেখান থেকে র‌্যাডিসনের অবস্থান ডিপস্কয়ার লেগ বরাবর। অনুশীলনে লুইসকে নিয়ে মধুর বিড়ম্বনায় পড়েন কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন। একটু শর্টবল পেলেই লুইস টেনে টেনে বল পাঠাচ্ছিলেন স্টেডিয়ামের বাইরে। নেট সাধারণত মাঠের পাশেই থাকে। যার কারণে লুইসের শটগুলো সব র‌্যাডিসনে বরাবর উড়ে যাচ্ছিল। বলবয়রা বল আনতে আনতে বিরক্ত হয়ে যান। এরমধ্যে কয়েকটি বল হারিয়েও যায়!

ম্যাচে যেন ঠিক সেই লুইস। লেগসাইডের প্রায় সবকটি অঞ্চল দারুণ দক্ষতায় ব্যবহার করেন। তার এই পরিকল্পনা ভাইকিংস যতক্ষণে ধরতে পারে, ততক্ষণে দেরি যায়।

১২তম ওভারে অধিনায়ক রঞ্চি এমরিতকে বলে এনে অফসাইডে ফিল্ডার বাড়িয়ে দেন। এমরিতও আউটসাইড অফস্টাম্পে বল রাখতে থাকেন। দ্বিতীয় বলটি ফসকে গেলেও অফস্টাম্পের বাইরে ফুলটস পড়ে। লুইস সেটিকে ডিপকাভারে প্লেস করতে গিয়ে নাজিবুল্লাহ জাদরানের হাতে ধরা পড়েন।

লুইসের এমন ব্যাটিংয়ের দিনে ঢাকার শুরুটা এতটুকু ভালো হয়নি। প্রথম ওভারে মিডঅফে তাসকিনের বলে রঞ্চি দুর্দান্ত ক্যাচের শিকার হন আফ্রিদি।

আফ্রিদি ফিরে গেলে লুইসকে সঙ্গ দেয়া ডেনলি ৪৪ করে বিদায় নেন। ৩৯ বলের ইনিংসে চারটি চারের সঙ্গে একটি ছয় মারেন তিনি।

ঢাকাকে জয় এনে দিতে বাকি কাজটুকু সারেন সাকিব আল হাসান এবং ডেলপোর্ট। লুইস ঝড় থামার পর ঢাকাকে জয় নিয়ে ভাবতে হয়নি ওই ডেলপোর্টের জন্যই। ১৮.৫ ওভারের ভেতর দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন দুজন। ডেলপোর্ট ২৪ বলে ৪৩ করেন। সঙ্গে সাকিব অপরাজিত ছিলেন ১৭ বলে ২২ করে।

ভাইকিংসের সবচেয়ে খরুচে সিকান্দার রাজা। ৩৭ রান দিয়ে কোন উইকেট পাননি। তাসকিন এক উইকেট নিতে ৩৫ রান দেন। সৌম্য তিন ওভারে ৩০ দিয়ে উইকেটহীন।

এই হারের পর শেষ চারে ওঠা চিটাগংয়ের জন্য কঠিন হয়ে গেল। পয়েন্ট টেবিলের তলানিতেই থাকতে হচ্ছে তাদের। অন্যদিকে ঢাকা শীর্ষে উঠে গেল।

চিটাগং ভাইকিংসের ইনিংস পড়তে ক্লিক করুন: দেশি-বিদেশির ঝড়ে ঢাকার সামনে রানপাহাড়

চিটাগং: ১৮৭/৫
ঢাকা: ১৯১/৩ (১৮.৫ ওভার)
৭ উইকেটে জয়ী ঢাকা।
প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ: লুইস

BSH
Bellow Post-Green View