চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

লিটন যা বললেন কোহলির ‘অনুপস্থিতি’ নিয়ে

‘সত্যিটা হল কোহলির খেলা বা না খেলা আসলেই কোনো ব্যাপার নয়।’ ভারতের বিপক্ষে টি-টুয়েন্টি সিরিজে নেমে পড়ার আগে দেশটির নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলির অনুপস্থিতি নিয়ে এভাবেই বলেছেন বাংলাদেশের উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান লিটন দাস।

টাইগারদের বিপক্ষে তিন টি-টুয়েন্টির সিরিজে ভারতকে নেতৃত্ব দেবেন রোহিত শর্মা। কোহলি ছোট ফরম্যাটের সিরিজে বিশ্রাম নিয়েছেন। তবে দুই টেস্টের সিরিজে খেলবেন। সেরা ফর্মের কোহলির এই না থাকা যেকোনো প্রতিপক্ষের জন্যই স্বস্তির হতে পারে।

ভারতীয় এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে লিটন অবশ্য সেরকম কিছুই মানেননি। দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে প্রথম অনুশীলনের পর ডানহাতি ব্যাটসম্যান জবাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন, বাংলাদেশের যত ভাবনা নিজেদের সেরাটা দেয়া নিয়েই।

কোহলি টানা খেলার ধকলে ছিলেন। সামনেও লাগাতার সিরিজ ভারতের। তিনি যদি বিশ্রাম নেয়া প্রয়োজন মনে করেনই, লিটন সেটাকে ইতিবাচকভাবেই দেখছেন।

‘সে যখন বিশ্রামের সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সেটার পেছনে নিশ্চয় কোনো কারণ আছে, আমরা এটি নিয়ে ভাবছি না। প্রত্যেক খেলোয়াড়কেই নিজের শরীর নিয়ে ভাবতে হয়। বিষয়টি এমনও নয় যে তার অনুপস্থিতিতে ভারতের শক্তি কমে গেছে। অনেক ভালো খেলোয়াড় তাদের দলে আছে।’

বিজ্ঞাপন

ভারত যখন কোহলির না থাকা নিয়ে বাজার গরম করতে চাইছে ‘বাংলাদেশ সুবিধা পাবে’ এই বলে, তখন লিটন মনে করিয়ে দিয়েছেন বাংলাদেশও তো দুইজন অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকে সিরিজে পাচ্ছে না।

‘এই সিরিজে আমরাও আমাদের সবচেয়ে অভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের পাচ্ছি না। সুতরাং যারা আছে আমাদেরও তাদের নিয়েই খেলতে হবে।’

আইসিসির নিষেধাজ্ঞায় সাকিব আল হাসান ও পারিবারিক কারণে নিজেকে সরিয়ে নেয়া তামিম ইকবালকে ভারত সিরিজে পাচ্ছে না বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ-ভারতের প্রথম টি-টুয়েন্টি ম্যাচ হবে ৩ নভেম্বর, দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে। তিন ম্যাচ সিরিজের পরের দুই লড়াই ৭ নভেম্বর, রাজকোটে এবং ১০ নভেম্বর, নাগপুরে।

টি-টুয়েন্টি সিরিজের পর শুরু হবে দুদলের মধ্যকার দুই টেস্টের সিরিজ। যার প্রথমটি হবে ইন্দোরে এবং দিন-রাতের দ্বিতীয়টি কলকাতায়।

বিজ্ঞাপন