চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

লক্ষ্মীপুরে সর্দি, জ্বর ও শ্বাসকষ্টে শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু

মহিউদ্দিন মুরাদ: লক্ষ্মীপুরে করোনাভাইরাস এ আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় প্রতিদিনই বাড়ছে। করোনার উপসর্গ সর্দি, জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে মারা গেছে এক শিশুসহ দু’জন।

এদের মধ্যে ওই শিশুর নাম সাথী আক্তার। বয়স ৬ বছর। তার বাড়ি কমলনগর উপজেলার চরপাগলা গ্রামে। অপর মৃত ব্যবসায়ী জশিম উদ্দিন (৩৫) এর বাড়ি রামগতি উপজেলার চর আলেকজান্ডারের বালুরচর গ্রামে।

বিজ্ঞাপন

মৃত শিশু ও ব্যবসায়ীসহ দুই বাড়ির দুইটি পরিবারের ১৩ জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে জেলা সিভিল সার্জন অফিস ও স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

খবরটি নিশ্চিত করে মৃত দু’জনের নমুনা সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রামে পাঠানো হয়েছে বলে জানান কমলনগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু তাহের ও রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. কামনাশীষ মজুমদার ।

বিজ্ঞাপন

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় লক্ষ্মীপুরে ৩৬ জনের রিপোর্ট এসেছে। এরমধ্যে তিনজন করোনা পজেটিভ হওয়ার খবর জানিয়েছে জেলা সিভিল সার্জন অফিস। এ তিনজনই রামগতি উপজেলার করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি। এ নিয়ে রামগতিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা চারজনে পৌঁছালো। জেলায় কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছে মোট ৩৩ জন। এদের মধ্যে রামগঞ্জ উপজেলার একজন মুক্তিযোদ্ধা কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

অপরদিকে গত ১৩ এপ্রিল লক্ষ্মীপুর জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করে জেলা প্রশাসন। এর মাঝেও মানুষ কোভিড-১৯ এর ভয়াবহতাকে উপেক্ষা করে হাটবাজারে জমায়েত হচ্ছে। পাড়া মহল্লা এবং ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে অনেক ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব মানছে না। সামাজিক দূরত্ব এবং কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে প্রতিদিন চলছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান।

এর মাঝে গত ২৪ ঘণ্টায় ভ্রাম্যমাণ আদালত রামগতি, কমলনগর, রামগঞ্জ ও সদর উপজেলায় চারটি অভিযান চালিয়ে ২১ জনের বিরুদ্ধে ২১টি মামলা রুজু করে এবং তাদের কাছ থেকে নগদ ৭৪ হাজার ৪০০ টাকা জরিমানা আদায় করে।

এসব অভিযানে নেতৃত্ব দেন কমলনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোবারক হোসেন, রামগতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল মোমিন, সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মামুনুর রশীদ. রামগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ হুমায়ুন রশীদ।