চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

লকডাউন তুলেও যে বিপদ দেখছে উহান

বিশ্বব্যাপী মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস কবলে অনেকটায় হাপিত্যেশ করছে সমগ্র বিশ্বের মানুষ। যদিও এর প্রকোপ কমতে শুরু করেছে, এমন খবর শুনতে অধীর আগ্রহে রয়েছে মানুষ। স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে অপেক্ষার প্রহর গুনছে সবাই।

কিন্তু করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনের উহান শহরের লকডাউনের যে বার্তা দিয়েছে, তাতে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে এখন অনেক সময় অপেক্ষা করতে হবে বিশ্বকে।

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাস সংক্রমণে টানা ৭৬ দিন লকডাউন কাটানো শেষে ৮ এপ্রিল সীমিত আকারে খুলে দেয়া হয় উহান শহর।

কিন্তু লকডাউন শিথিল করার পরও সেখানে বেশির ভাগ দোকান বন্ধ রাখা হয়েছে, কিছু রেস্টুরেন্টে খোলা হলেও নেয়া হয়েছে ব্যাপক নিরাপত্তা। সেখানকার মানুষ  বাইরে যাওয়ার সময় ব্যক্তিগত নিরাপত্তা নিয়ে বের হচ্ছেন। সামাজিক দূরত্ব বাজায়ে রেখেই চলা-ফেরা করছেন।

বিজ্ঞাপন

উহানের মহামারি নিয়ন্ত্রণ অফিসের কর্মকর্তা গত ৮ এপ্রিল এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, উহানের কিছু সেক্টর সম্পূর্ণভাবে খুলে দেয়া হয়েছে।

গত ২৫ তারিখে উহান সরকার মহামারি ও অর্থনৈতিক সফলতা অর্জনের জন্য প্রতিজ্ঞা করেন।

তবে সেখানকার সরকার নিয়ন্ত্রিত গণমাধ্যম বলছে, এপ্রিলের শেষ নাগাদ লকডাউন শতভাগ উঠিয়ে দিলে তা হবে ‘অতিমাত্রা আশাবাদী’!

যদিও সেখানে ঘুরে সিএনএনের প্রতিবেদক জানিয়েছে, উহানের ব্যবসায়ীরা দুর্দশায় ব্যবসা চালাচ্ছে। তাদের মুনাফা জিরোতে নেমে এসেছে। এই অর্থনৈতিক চাকা সচল হতে আরো মাসখানেক সময় লাগবে বলে ব্যবসায়ী মালিকরা জানিয়েছেন।

জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউনে থেকে সম্পূর্ণভাবে স্বাভাবিক অবস্থায় এখনো ফিরতে পারেনি উহান।