চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই গ্রুপের সংষর্ষ: গ্রেপ্তার ১৬

কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের দুই গ্রুপে সংষর্ষের ঘটনায় জড়িত ১৬ জন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করেছে আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ান (এপিবিএন)।

কক্সবাজারস্থ এপিবিএন-১৬ ব্যাটালিয়ানের অধিনায়ক পুলিশ সুপার মো. হেমায়েতুর রহমান জানিয়েছেন, শনিবার সকালে উখিয়ার বালুখালী চেকপোস্ট ও সোনার পাড়া চেকপোস্টে পৃথক অভিযানে এসব রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

তিনি জানান, গ্রেপ্তাররা কুতুপালং ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িত ছিল। তারা গ্রেপ্তারের ভয়ে ক্যাম্প ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছিল।

বিজ্ঞাপন

হেমায়েতুর বলেন, শনিবার সকালে এপিবিএন এর উখিয়ার বালুখালী চেকপোস্টের সদস্যরা তল্লাশি চালিয়ে ক্যাম্প থেকে পালানোর সময় ৪ টি রামদাসহ জিয়াউর রহমান (৩০), মো. উসমান (৩০), সৈয়দ উল্লাহ (২৮) ও মো. রফিক (৩০) নামের ৪ জন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করা হয়। সম্প্রতি কুতুপালং ক্যাম্পে সংঘটিত দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় তারা জড়িত ছিল। তারা উখিয়ার বালুখালী ক্যাম্পের বিভিন্ন ব্লকের বাসিন্দা।

বিজ্ঞাপন

এদিকে শনিবার সকালে উখিয়ার সোনার পাড়া চেকপোস্টে তল্লাশীকালে ১২ জন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে কক্সবাজারস্থ এপিবিএন-১৬ ব্যাটালিয়ানের অধিনায়ক (এসপি) মো. হেমায়েতুর রহমান।

তিনি বলেন, সম্প্রতি কুতুপালং ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের দুইগ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেপ্তার সন্ত্রাসীরা জড়িত ছিল। এ ঘটনায় দায়ের মামলায় গ্রেপ্তার এড়াতে তারা ক্যাম্প এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছিল।

গ্রেপ্তার হওয়াদের মধ্যে রয়েছেন এজাজুল হক (৬০), রহমত উল্লাহ (২৯), সোনা মিয়া (২১), রশিদ উল্লাহ (১৫), ইয়াচের (২১), উসমান (২১), ইসমাঈল (১৬), কবির আহম্মদ (৪০), সুলতান আহম্মেদ (৪০), আইয়ুব সালাম (২৫), আবুল কাশেম (১৮), মো. রফিক উল্লাহ।

গ্রেপ্তার হওয়া এসব রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের সংশ্লিষ্ট মামলায় আসামি দেখিয়ে উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান এপিবিএন-১৬ ব্যাটালিয়ানের এই অধিনায়ক।