চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রোনালদো-দিবালারা চার মাস বেতন নেবেন না

জুভেন্টাসের কোচ, খেলোয়াড়রা চার মাসের বেতন নেবেন না বলে একমত হয়েছেন। ইতালিয়ান লিগ সিরি আর ক্লাবটিতে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, পাওলো দিবালার মতো তারকা ফুটবলাররা খেলেন। করোনাভাইরাসের মহামারীতে খেলা বন্ধ থাকার সময়টাতে তাদের এই বেতন না নেয়া ক্লাবটিকে ৯৯ মিলিয়ন ইউরো বাঁচাতে সাহায্য করবে।

আংশিক বেতন না নেয়ার মধ্যে বার্সেলোনার মতো ক্লাবের লিওনেল মেসি, অ্যান্টনিও গ্রিজম্যানরা আছেন। বায়ার্ন মিউনিখ ও বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের খেলোয়াড়রাও কর্তিত বেতনের জন্য সম্মতি দিয়েছেন। রোনালদো-দিবালাদের সিদ্ধান্তের পর জুভেন্টাসই হচ্ছে প্রথম ক্লাব যার খেলোয়াড়রা পুরো বেতনই না নিতে সম্মত হলেন। সেটিও দীর্ঘ সময়ের জন্য।

বিজ্ঞাপন

লিগ টেবিলের শীর্ষে থাকা জুভেন্টাসের খেলোয়াড়রা মার্চ, এপ্রিল, মে ও জুন মাসে কোনো বেতন নেবেন না বলে ক্লাবকে জানিয়ে দিয়েছেন। কোচ মাউরিসিও সারি ও খেলোয়াড়দের সঙ্গে আলোচনার পর ক্লাব কর্তৃপক্ষ সোমবার সেটি প্রকাশ করেছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সঙ্গে কোচ ও খেলোয়াড়দের ধন্যবাদ জানিয়েছে তুরিনের ক্লাবটি। সকলের জন্য কঠিন ও দুর্যোগের সময়টাতে এমন সিদ্ধান্ত নেয়ায় খেলোয়াড়দের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছে জুভরা।

করোনাভাইরাসের ধাক্কায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে ইতালি শীর্ষে। সেখানে আক্রান্ত আর মৃত্যুর মিছিল বেড়েই চলেছে। আপাতত ৩ এপ্রিল পর্যন্ত দেশটির সরকার সব ধরনের খেলাধুলা বন্ধ ঘোষণা করেছে। যেটি আরও দীর্ঘ হওয়ার চিত্র স্পষ্ট।

জুভদের তিন খেলোয়াড় ড্যানিয়েলে রুগানি, পাওলো দিবালা ও ব্লেইস মাতুইদি করোনা আক্রান্ত হয়ে সেরে ওঠার পথে আছেন। পুরো দল কোয়ারেন্টাইনে চলে যায় ক্লাবের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে রুগানির সংক্রমণের পরই। রোনালদো পর্তুগালের মাতুইদিতে নিজ বাড়িতে স্বেচ্ছা কোয়ারেন্টাইনে চলে যান।