চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রোনালদোর রেকর্ডের দিনে ইউনাইটেডের হার

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে শত গোলদাতাদের অভিজাত ক্লাবে নাম লেখালেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। সদ্য সন্তান হারা সিআরসেভেনের রেকর্ডের দিনে ভুগেছে রেড ডেভিলরা। আর্সেনালের বিপক্ষে সুযোগ মিস, বাজে পাস ও পেনাল্টি হাতছাড়া হওয়া ম্যাচে হারের বৃত্তেই থাকল রাল্ফ র‌্যাঙ্গনিকের দল।

এমিরেটস স্টেডিয়ামে ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতেছে মিকেল আর্তেতার শিষ্যরা। জালের দেখা পেয়েছেন নুনো টাভারেস, গ্রানিত জাকা ও বুকায়ো সাকা। ইউনাইটেডের হয়ে গোলটি এসেছে রোনালদোর পা থেকে।

Reneta June

গানারদের ঘরের মাঠে ২০১৭ সালের ডিসেম্বর পর থেকে কোনো লিগ ম্যাচ জিততে পারেনি ইউনাইটেড। গত ম্যাচে লিভারপুলের বিপক্ষে বিধ্বস্ত হবার পর গানারদের কাছে হার চোখ রাঙাচ্ছে রেড ডেভিলদের শেষ চারে থাকাও সংশয়ে ফেলেছে।

বিজ্ঞাপন

প্রতিপক্ষের মাঠে বল দখলের লড়াইয়ে পিছিয়ে থাকলেও বেশ কিছু সুযোগ তৈরি করেছিল রোনালদো-স্যাঞ্চোরা। ১১ শটের পাঁচটি গোলে রেখেছিল ডেভিলরা। বিপরীতে ১২ শটের পাঁচটি লক্ষ্যে ছিল গানারদের। বড় জয়ে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে স্পার্সদের পেছনে ফেলে টেবিলের চারে উঠেছে আর্সেনাল। ৩৪ ম্যাচে ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে ছয়েই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

এমিরেটস স্টেডিয়ামে এদিন শুরুর পাঁচ মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে সফরকারীরা। দারুণ প্লেসমেন্টে ডেভিড ডি গিয়াকে পরাস্ত করেন পর্তুগিজ রক্ষণভাগের খেলোয়াড় নুনো টাভারেজ। পরের মিনিটেই সমতায় ফিরতে পারত ইউনাইটেড। কিন্তু অ্যান্থনি এলেঙ্গার জোড়ালো শট ফিরিয়ে দেন আর্সেনাল গোলরক্ষক অ্যারন র‍্যামসডেল।

২৫ মিনিটে গানারদের এগোতে দেয়নি ডি গিয়া। কিন্তু পরের মিনিটেই গোল খেয়ে বসে ইউনাইটেড। ভিএআরে অফসাইডের কারণে গোল বাতিল হলেও সাকাকে অ্যালেক্স টেলেস ফাউল করলে পেনাল্টি পায় আর্সেনাল। সফল স্পটকিকে লিড ২-০ করেন সাকা।

পরের মিনিটেই ইতিহাস গড়েন ফুটবলের অন্যতম সুপারস্টার রোনালদো। ডি বক্সে কাড়িকুড়ির একপর্যায়ে সিআরসেভেন উদ্দেশে ক্রস বাড়ান ম্যাটিক। দারুণ এক টোকায় প্রিমিয়ার লিগের শততম গোল করেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড।

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের ক্লাবটিতে দুই মেয়াদ মিলিয়ে এনিয়ে ১০০ গোল করেছেন রোনালদো। এ প্রতিযোগিতায় শত গোলদাতাদের অভিজাত সারিতে আছেন আরও ৩৩ খেলোয়াড়। তবে এই রেকর্ডে রোনালদো অন্য এক জায়গায় অনন্য। সবচেয়ে বেশি বয়সে এই রেকর্ড ছুলেন পর্তুগিজ মহাতারকা। এতদিন তার উপরে ছিলেন ৩৬ বছর দুই দিনের ইংলিশ ফুটবলার পিটার ক্রাওচ। রোনালদোর নাম লিখিয়েছেন ৩৭ বছর ৭৭ দিনে।

সদ্যই সন্তান হারানো বাবা, মৃত সন্তানের মুখ ভুলে রোনালদো স্কোর গড়লেও তার দল ভুগেছে পরের সময়গুলোতে। প্রথমার্ধ্বের যোগ করা সময়ে টেলেসের শট র‍্যামসডেল ঠেকিয়ে দিলে পিছিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

বিরতির পর সমতায় ফেরার দারুণ সুযোগ এসেছিল রেড ডেভিলদের। ডি বক্সে টাভারেসকে ম্যাটিক ফাউল করলে পেনাল্টির জোড়ালো আবেদন জানায় রোনালদোরা। ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টি পেলেও সেটি মিস করেছেন ব্রুনো ফার্নান্দেজ। পর্তুগিজ তারকার নিচু হওয়া শট দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দেন র‍্যামসডেল।

পরে ৬৩ মিনিটে রোনালদোর শট বারের উপর দিয়ে যায়, ঠিকঠাক লাইনে শট রাখতেও ভোগে রাঙ্গনিকের শিষ্যরা। ম্যাচের ৭০ মিনিটে মোহামেদ এলেনির দারুণ এক ফ্লিক থেকে বল জালে জড়ান জাকা। বাকি সময়ে বেশ কিছু সুযোগ তৈরি করলেও জালের দেখা পায়নি কোনো দল।